ঢাকা , শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘তারেকের নির্দেশে খালেদা জিয়াকে রাজনীতি থেকে মাইনাস করতে চায় বিএনপি’

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৫:১৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • 43

সিনিয়র রিপোর্টার : বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে দলটি খালেদা জিয়াকে রাজনীতি থেকে মাইনাস করতে চান উল্লেখ করে সাবেক খাদ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, মামলা হলেই প্রতিদিন আপনারা আদালতের দ্বারস্থ হন জামিনের জন্য। নাইকো মামলা, এই মামলা-সেই মামলার জন্য আপনারা আদালতের দ্বারস্থ হন, কিন্তু খালেদা জিয়ার জন্য কবে আদালতে গিয়েছিলেন?  তার মুক্তি এবং বিদেশে চিকিৎসা একমাত্র আদালতের মাধ্যমেই হতে পারে, অন্য কোনো পথে নয়। আপনারা সেটা জানেন না। আপনারা তাকে জেলখানায় রাখতে চান, রাজনীতি থেকে মাইনাস করতে চান।

 আজ সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের ১৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

কামরুল বলেন, আপনাদের সামনে দুটি পথ ছিল– আন্দোলনকে তীব্রতর করে তাকে মুক্ত করা অথবা বারবার আদালতের শরণাপন্ন হয়ে আদালতের মাধ্যমে তার মুক্তি নিশ্চিত করা, বিদেশে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা। কোনোটাই আপনারা করেন না রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা ভিক্ষা চাইতে পারতেন, তাও করেন না। আপনাদের উদ্দেশ্য- তারেকের ফর্মুলাতে গিয়ে খালেদা জিয়াকে রাজনীতি থেকে মাইনাস করে জেলখানায় রাখা। আবার সরকারের দোষ দেন। সাঈদীর সঙ্গে খালেদা জিয়াকে তুলনা করেন। ভালো, এতদিন পর সত্য কথাটাই বলেছেন।

বিএনপি দেশকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যেতে চাইছে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, বিএনপি আজ বাংলাদেশে আমাদের সব অর্জন-উন্নয়নকে নস্যাৎ করার চেষ্টা করছে। ষড়যন্ত্র করছে গণতান্ত্রিক সরকারকে হটিয়ে আবার অনির্বাচিত সরকার কায়েমের। তারা সেই তত্ত্বাবধায়ক সরকার চায়। যে সরকার তিন মাসের কথা বলে দুই বছর থেকে যায়। আবার তারা ক্ষমতার পরিবর্তন চায়, যেটা সম্ভব না। তাই নতুন প্রজন্মকে বলব- এই অপশক্তির বিরুদ্ধে আমাদের অতন্দ্র প্রহরীর মতো সজাগ থাকতে হবে। তারা দেশের শত্রু, জাতির শত্রু। তাদের স্লোগানই হচ্ছে- টেক ব্যাক বাংলাদেশ। আমরা যখন স্মার্ট বাংলাদেশের কথা বলি, তখন তারা বলে- টেক ব্যাক বাংলাদেশ। 

বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান দুর্জয়ের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ডা. দিলীপ কুমার রায়, আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের সাধারণ সম্পাদক খাজা হোসেন, সহ-সভাপতি আলমগীর হোসেন, বশির আহমেদ বাদল, শাহ আলম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন বাবু, সাংগঠনিক সম্পাদক তারেক আইয়ূব প্রমুখ।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

লোকসভা নির্বাচন-২০২৪ : ভোটের আগে বিজেপি ছেড়ে কংগ্রেসে যোগ দিলেন কর্ণাটকের সাবেক মন্ত্রী

‘তারেকের নির্দেশে খালেদা জিয়াকে রাজনীতি থেকে মাইনাস করতে চায় বিএনপি’

আপডেট সময় ০৫:১৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩

সিনিয়র রিপোর্টার : বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে দলটি খালেদা জিয়াকে রাজনীতি থেকে মাইনাস করতে চান উল্লেখ করে সাবেক খাদ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, মামলা হলেই প্রতিদিন আপনারা আদালতের দ্বারস্থ হন জামিনের জন্য। নাইকো মামলা, এই মামলা-সেই মামলার জন্য আপনারা আদালতের দ্বারস্থ হন, কিন্তু খালেদা জিয়ার জন্য কবে আদালতে গিয়েছিলেন?  তার মুক্তি এবং বিদেশে চিকিৎসা একমাত্র আদালতের মাধ্যমেই হতে পারে, অন্য কোনো পথে নয়। আপনারা সেটা জানেন না। আপনারা তাকে জেলখানায় রাখতে চান, রাজনীতি থেকে মাইনাস করতে চান।

 আজ সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের ১৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

কামরুল বলেন, আপনাদের সামনে দুটি পথ ছিল– আন্দোলনকে তীব্রতর করে তাকে মুক্ত করা অথবা বারবার আদালতের শরণাপন্ন হয়ে আদালতের মাধ্যমে তার মুক্তি নিশ্চিত করা, বিদেশে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা। কোনোটাই আপনারা করেন না রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা ভিক্ষা চাইতে পারতেন, তাও করেন না। আপনাদের উদ্দেশ্য- তারেকের ফর্মুলাতে গিয়ে খালেদা জিয়াকে রাজনীতি থেকে মাইনাস করে জেলখানায় রাখা। আবার সরকারের দোষ দেন। সাঈদীর সঙ্গে খালেদা জিয়াকে তুলনা করেন। ভালো, এতদিন পর সত্য কথাটাই বলেছেন।

বিএনপি দেশকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যেতে চাইছে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, বিএনপি আজ বাংলাদেশে আমাদের সব অর্জন-উন্নয়নকে নস্যাৎ করার চেষ্টা করছে। ষড়যন্ত্র করছে গণতান্ত্রিক সরকারকে হটিয়ে আবার অনির্বাচিত সরকার কায়েমের। তারা সেই তত্ত্বাবধায়ক সরকার চায়। যে সরকার তিন মাসের কথা বলে দুই বছর থেকে যায়। আবার তারা ক্ষমতার পরিবর্তন চায়, যেটা সম্ভব না। তাই নতুন প্রজন্মকে বলব- এই অপশক্তির বিরুদ্ধে আমাদের অতন্দ্র প্রহরীর মতো সজাগ থাকতে হবে। তারা দেশের শত্রু, জাতির শত্রু। তাদের স্লোগানই হচ্ছে- টেক ব্যাক বাংলাদেশ। আমরা যখন স্মার্ট বাংলাদেশের কথা বলি, তখন তারা বলে- টেক ব্যাক বাংলাদেশ। 

বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান দুর্জয়ের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ডা. দিলীপ কুমার রায়, আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের সাধারণ সম্পাদক খাজা হোসেন, সহ-সভাপতি আলমগীর হোসেন, বশির আহমেদ বাদল, শাহ আলম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন বাবু, সাংগঠনিক সম্পাদক তারেক আইয়ূব প্রমুখ।