ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রিজভীর হুঁশিয়ারি ‘তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি আদায়েই আন্দোলন শেষ হবে’

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৬:৫১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • 158
অনলাইন ডেস্ক : বিএনপির চলমান আন্দোলন নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠা করেই শেষ হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী। বুধবার (২০ সেপ্টেম্বর) সকালে কুমিল্লা কোর্টে হাজিরা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন তিনি। রিজভী বলেন, ‘অবৈধ সরকারের পদত্যাগের দাবিতে আমাদের এক দফার আন্দোলন চলছে। এ আন্দোলনের মাধ্যমে শেখ হাসিনাকে পদত্যাগে বাধ্য করে কেয়ারটেকার (তত্ত্বাবধায়ক) সরকার প্রতিষ্ঠা করেই আমাদের আন্দোলন শেষ হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘এ মামলার হাজিরা আমরা নিয়মিত দিচ্ছি। আগেও দিয়েছি এখনও দিচ্ছি। তবে এই মামলা যারা দিয়েছে বিরোধী দলের শক্তিকে খর্ব করার জন্য।
বালুর ও কাঠের ট্রাক দিয়ে বেগম খালেদা জিয়াকে বন্দী করে রাখা হয়েছিল তিনি এসে নাকি এই চৌদ্দগ্রামে বাস পুড়িয়ে দিয়েছিল? এই ঘটনা ঘটার প্রায় ৪৮ ঘণ্টা আগে আমাকে আটক করে কারাগারে রাখা হয়েছিল। তাহলে বুঝতে হবে এটা পরিকল্পিত অসদুদ্দেশ্যপ্রণোদিত।’ বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, ‘শেখ হাসিনা তার অবৈধ ক্ষমতা ধরে রাখার জন্য বিরোধী দলগুলোকে ধ্বংস করার জন্য সারাদেশে ৪৫-৪৯ লাখ মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে এটাও তারই একটি অংশ। এগুলো করে লাভ হবে না। দেশের মানুষ জেগে উঠেছে। এক দফা আন্দোলন শুরু হয়েছে। তবে এই সরকার দেড় যুগ ধরে অবৈধভাবে ক্ষমতায় আছে। দেশের মানুষকে অত্যাচার জুলুম নির্যাতন করছে।’
ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

সিলেটে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে

রিজভীর হুঁশিয়ারি ‘তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি আদায়েই আন্দোলন শেষ হবে’

আপডেট সময় ০৬:৫১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২৩
অনলাইন ডেস্ক : বিএনপির চলমান আন্দোলন নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠা করেই শেষ হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী। বুধবার (২০ সেপ্টেম্বর) সকালে কুমিল্লা কোর্টে হাজিরা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন তিনি। রিজভী বলেন, ‘অবৈধ সরকারের পদত্যাগের দাবিতে আমাদের এক দফার আন্দোলন চলছে। এ আন্দোলনের মাধ্যমে শেখ হাসিনাকে পদত্যাগে বাধ্য করে কেয়ারটেকার (তত্ত্বাবধায়ক) সরকার প্রতিষ্ঠা করেই আমাদের আন্দোলন শেষ হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘এ মামলার হাজিরা আমরা নিয়মিত দিচ্ছি। আগেও দিয়েছি এখনও দিচ্ছি। তবে এই মামলা যারা দিয়েছে বিরোধী দলের শক্তিকে খর্ব করার জন্য।
বালুর ও কাঠের ট্রাক দিয়ে বেগম খালেদা জিয়াকে বন্দী করে রাখা হয়েছিল তিনি এসে নাকি এই চৌদ্দগ্রামে বাস পুড়িয়ে দিয়েছিল? এই ঘটনা ঘটার প্রায় ৪৮ ঘণ্টা আগে আমাকে আটক করে কারাগারে রাখা হয়েছিল। তাহলে বুঝতে হবে এটা পরিকল্পিত অসদুদ্দেশ্যপ্রণোদিত।’ বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, ‘শেখ হাসিনা তার অবৈধ ক্ষমতা ধরে রাখার জন্য বিরোধী দলগুলোকে ধ্বংস করার জন্য সারাদেশে ৪৫-৪৯ লাখ মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে এটাও তারই একটি অংশ। এগুলো করে লাভ হবে না। দেশের মানুষ জেগে উঠেছে। এক দফা আন্দোলন শুরু হয়েছে। তবে এই সরকার দেড় যুগ ধরে অবৈধভাবে ক্ষমতায় আছে। দেশের মানুষকে অত্যাচার জুলুম নির্যাতন করছে।’