ঢাকা , শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অক্টোবরে চার প্রকল্পের উদ্বোধন, মাসজুড়ে আ.লীগের কর্মসূচি

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ১০:৩৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ১ অক্টোবর ২০২৩
  • 49

সিনিয়র রিপোর্টার : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, চলতি অক্টোবর মাসেই ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনাল, পদ্মা সেতু হয়ে ঢাকা-ভাঙ্গা রেল চলাচল, মেট্রোরেলের আগারগাঁও থেকে মতিঝিল অংশ এবং চট্টগ্রামে বঙ্গবন্ধু টানেল উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রবিবার (১ অক্টোবর) বঙ্গবন্ধু এভিনিউ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক যৌথসভায় তিনি এ তথ্য নিশ্চিত করেন। ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ শাখা ও ঢাকার আশপাশের জেলা শাখা এবং সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতীম সংগঠনগুলোর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের সঙ্গে এ বৈঠক করেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সামনে সময় আছে মাত্র ৩০ দিন। আগামী ৩ অক্টোবর আমিন বাজারে সমাবেশ হবে। ৭ অক্টোবর ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনাল উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এটি উদ্বোধন করতে সুধী সমাবেশ করা হবে। ১০ অক্টোবর পদ্মা সেতু হয়ে ঢাকা থেকে ভাঙ্গা পর্যন্ত রেল চলাচলের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। এ উপলক্ষে মাওয়া প্রান্তে সুধী সমাবেশ করা হবে। ১৮ অক্টোবর শেখ রাসেলের জন্মদিন উদ্যাপন করা হবে।ঢাকার অপর প্রান্তেও সমাবেশ হবে। ২৩ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী মেট্রোরেলের আগারগাঁও থেকে মতিঝিল অংশ উদ্বোধন করবেন। এ উপলক্ষে মতিঝিলের শাপলা চত্বরে সুধী সমাবেশ করা হবে। ২৮ অক্টোবর উদ্বোধন হবে দক্ষিন এশিয়ার প্রথম নদীর তলদেশের ‘বঙ্গবন্ধু টানেল’। সেখানেও সমাবেশ হবে। এসব সমাবেশে বিপুল সংখ্যক জনসমাগম করার প্রস্তুতি নিতে নেতাদের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। 

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন ঢাকা ও এর আশপাশের জেলায় সমাবেশের দরকার আছে। মহিলা আওয়ামী লীগ, যুব মহিলা লীগসহ তিন সংগঠন মিলে বিশাল সমাবেশ করতে হবে। গণভবনেও মহিলাদের সমাবেশ হবে। পেশাজীবীদের নিয়ে আরেকটি সমাবেশ করা হবে। এছাড়া সকল জেলা, উপজেলায় মাসব্যাপী শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশ করার নির্দেশ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ এর সাধারণ সম্পাদক। তিনি জানান, আগামী ৪ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে ফিরবেন। আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে তাকে বড় ধরনের সংবর্ধনা প্রস্তুতি নিলেও জনদুর্ভোগের বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে তিনি তা করতে নিষেধ করেছেন। বলে জানান ওবায়দুল কাদের।

সভায় উপস্থিত ছিলেন সভায় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী ও গাজীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আ ক ম মোজাম্মেল হক, আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ, মাহবুবউল আলম হানিফ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, দীপু মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমেদ হোসেন, মির্জা আজম, আফজালুর রহমান, সুজিত রায় নন্দী, দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মো. সিদ্দিকুর রহমান, উপ-দফতর সম্পাদক সায়েম খান যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ, স্বেচ্ছাসবেক লীগের সভাপতি মেসবাউল হোসেন সাচ্চু, ছাত্রলীগের সভাপতি  সাদ্দাম হোসেন, সাধারণ সম্পাদক শেখ ওয়ালী আসিফ ইনান, যুব মহিলা লীগের সভাপতি ডেইজী সারোয়ার, সাধারণ সম্পাদক শারমিন সুলতানা লিলি প্রমুখ।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

মিয়ানমার থেকে গুলি হলে আমরাও পাল্টা গুলি করব : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

অক্টোবরে চার প্রকল্পের উদ্বোধন, মাসজুড়ে আ.লীগের কর্মসূচি

আপডেট সময় ১০:৩৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ১ অক্টোবর ২০২৩

সিনিয়র রিপোর্টার : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, চলতি অক্টোবর মাসেই ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনাল, পদ্মা সেতু হয়ে ঢাকা-ভাঙ্গা রেল চলাচল, মেট্রোরেলের আগারগাঁও থেকে মতিঝিল অংশ এবং চট্টগ্রামে বঙ্গবন্ধু টানেল উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রবিবার (১ অক্টোবর) বঙ্গবন্ধু এভিনিউ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক যৌথসভায় তিনি এ তথ্য নিশ্চিত করেন। ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ শাখা ও ঢাকার আশপাশের জেলা শাখা এবং সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতীম সংগঠনগুলোর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের সঙ্গে এ বৈঠক করেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সামনে সময় আছে মাত্র ৩০ দিন। আগামী ৩ অক্টোবর আমিন বাজারে সমাবেশ হবে। ৭ অক্টোবর ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনাল উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এটি উদ্বোধন করতে সুধী সমাবেশ করা হবে। ১০ অক্টোবর পদ্মা সেতু হয়ে ঢাকা থেকে ভাঙ্গা পর্যন্ত রেল চলাচলের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। এ উপলক্ষে মাওয়া প্রান্তে সুধী সমাবেশ করা হবে। ১৮ অক্টোবর শেখ রাসেলের জন্মদিন উদ্যাপন করা হবে।ঢাকার অপর প্রান্তেও সমাবেশ হবে। ২৩ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী মেট্রোরেলের আগারগাঁও থেকে মতিঝিল অংশ উদ্বোধন করবেন। এ উপলক্ষে মতিঝিলের শাপলা চত্বরে সুধী সমাবেশ করা হবে। ২৮ অক্টোবর উদ্বোধন হবে দক্ষিন এশিয়ার প্রথম নদীর তলদেশের ‘বঙ্গবন্ধু টানেল’। সেখানেও সমাবেশ হবে। এসব সমাবেশে বিপুল সংখ্যক জনসমাগম করার প্রস্তুতি নিতে নেতাদের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। 

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন ঢাকা ও এর আশপাশের জেলায় সমাবেশের দরকার আছে। মহিলা আওয়ামী লীগ, যুব মহিলা লীগসহ তিন সংগঠন মিলে বিশাল সমাবেশ করতে হবে। গণভবনেও মহিলাদের সমাবেশ হবে। পেশাজীবীদের নিয়ে আরেকটি সমাবেশ করা হবে। এছাড়া সকল জেলা, উপজেলায় মাসব্যাপী শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশ করার নির্দেশ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ এর সাধারণ সম্পাদক। তিনি জানান, আগামী ৪ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে ফিরবেন। আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে তাকে বড় ধরনের সংবর্ধনা প্রস্তুতি নিলেও জনদুর্ভোগের বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে তিনি তা করতে নিষেধ করেছেন। বলে জানান ওবায়দুল কাদের।

সভায় উপস্থিত ছিলেন সভায় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী ও গাজীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আ ক ম মোজাম্মেল হক, আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ, মাহবুবউল আলম হানিফ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, দীপু মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমেদ হোসেন, মির্জা আজম, আফজালুর রহমান, সুজিত রায় নন্দী, দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মো. সিদ্দিকুর রহমান, উপ-দফতর সম্পাদক সায়েম খান যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ, স্বেচ্ছাসবেক লীগের সভাপতি মেসবাউল হোসেন সাচ্চু, ছাত্রলীগের সভাপতি  সাদ্দাম হোসেন, সাধারণ সম্পাদক শেখ ওয়ালী আসিফ ইনান, যুব মহিলা লীগের সভাপতি ডেইজী সারোয়ার, সাধারণ সম্পাদক শারমিন সুলতানা লিলি প্রমুখ।