ঢাকা , বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বার্নিকাটের গাড়িতে হামলা : বদিউল আলমের শ্যালককে প্রধান আসামি করে সম্পূরক চার্জশিট

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৫:৩৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ২ অক্টোবর ২০২৩
  • 40

অনলাইন ডেস্ক : ঢাকায় নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাটের গাড়িবহরে হামলার ঘটনায় করা মামলায় নয় জনকে অভিযুক্ত করে সম্পূরক চার্জশিট দাখিল করা হয়েছে। দীর্ঘ পাঁচ বছর তদন্ত শেষে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) এ চার্জশিট দাখিল করেন। চার্জশিটে সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদারের শ্যালক ও স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতা ইশতিয়াক মাহমুদকে প্রধান আসামি করা হয়েছে। অন্য আসামিরা হলেন—নাইমুল হাসান, ফিরোজ মাহমুদ, মীর আমজাদ হোসেন, সাজু ইসলাম, রাজিবুল ইসলাম রাজু, শহিদুল আলম খান কাজল, সিয়াম ও অলি আহমেদ ওরফে জনি।

গত রোববার (১ অক্টোবর) ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মোহাম্মদপুর থানার সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা এশারত আলী বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, আগের চার্জশিটে ইশতিয়াক মাহমুদের নাম ছিল না। সম্পূরক চার্জশিটে তার নাম যুক্ত করে তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির আবেদন করা হয়েছে। অন্য আসামিরা জামিনে রয়েছেন। ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে গত ১৯ সেপ্টেম্বর অধিকতর তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। আগামী ৪ অক্টোবর মামলার ধার্য তারিখ রয়েছে। ওই দিন সম্পূরক অভিযোগপত্র বিচারকের কাছে উপস্থাপন করা হবে। এদিকে আগের চার্জশিটভুক্ত আরেক আসামি তান্না ওরফে তানহা ওরফে মুজাহিদ আজমি তান্না মারা যাওয়ায় তাকে মামলার অব্যাহতি চেয়ে আবেদন করা হয়েছে।

২০২৩ সালের ১ জানুয়ারি ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রেজাউল করিম চৌধুরীর আদালত মামলাটি অধিকতর তদন্তের জন্য মহানগর গোয়েন্দা পুলিশকে নির্দেশ দেন। ২০২১ সালের ১৮ জানুয়ারি মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির পুলিশ পরিদর্শক মো. আবদুর রউফ অভিযোগপত্র দাখিল করেন। ছাত্রলীগ নেতাসহ ৯ জনের নামে এই অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। সম্পূরক অভিযোগপত্র থেকে তান্না ওরফে তানহা ওরফে মুজাহিদ আজমি তান্নাকে বাদ দেওয়া হয়েছে। কারণ হিসেবে বলা হয়েছে তিনি ইতিমধ্যে মারা গেছেন। 

আদালত ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ২০২২ সালের ২৮ মার্চ এ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। একই বছরের ৪ ডিসেম্বর এ মামলায় ছয় জনের সাক্ষ্যগ্রহণ সম্পন্ন হয়। তাদের মধ্যে সাক্ষী ড. বদিউল আলম মজুমদার, খুশি বেগম ও মাহবুবুল আলম মজুমদার জবানবন্দিতে জনৈক ইশতিয়াক মাহমুদের নাম উল্লেখ করেন। ২৭ ডিসেম্বর আদালত এ মামলাটি সাক্ষ্যগ্রহণ পর্যায় থেকে উত্তোলন করে অধিকতর তদন্তের স্বার্থে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য ঢাকার সিএমএম আদালতে পাঠান।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ৪ আগস্ট তৎকালীন মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদারের মোহাম্মদপুরের বাসায় নৈশভোজে অংশ নেন। নৈশভোজ শেষে বার্নিকাট রাত ১১টার দিকে ফেরার পথে অজ্ঞাত ৩০-৪০ জন সশস্ত্র ব্যক্তি রাষ্ট্রদূতের গাড়িতে হামলা চালান। সুজন সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার ওই বছর ১০ আগস্ট বাদী হয়ে মোহাম্মদপুর থানায় মামলা করেন।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন : অপরাধী হলে আজিজ-বেনজীরের বিচার হবে

বার্নিকাটের গাড়িতে হামলা : বদিউল আলমের শ্যালককে প্রধান আসামি করে সম্পূরক চার্জশিট

আপডেট সময় ০৫:৩৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ২ অক্টোবর ২০২৩

অনলাইন ডেস্ক : ঢাকায় নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাটের গাড়িবহরে হামলার ঘটনায় করা মামলায় নয় জনকে অভিযুক্ত করে সম্পূরক চার্জশিট দাখিল করা হয়েছে। দীর্ঘ পাঁচ বছর তদন্ত শেষে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) এ চার্জশিট দাখিল করেন। চার্জশিটে সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদারের শ্যালক ও স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতা ইশতিয়াক মাহমুদকে প্রধান আসামি করা হয়েছে। অন্য আসামিরা হলেন—নাইমুল হাসান, ফিরোজ মাহমুদ, মীর আমজাদ হোসেন, সাজু ইসলাম, রাজিবুল ইসলাম রাজু, শহিদুল আলম খান কাজল, সিয়াম ও অলি আহমেদ ওরফে জনি।

গত রোববার (১ অক্টোবর) ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মোহাম্মদপুর থানার সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা এশারত আলী বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, আগের চার্জশিটে ইশতিয়াক মাহমুদের নাম ছিল না। সম্পূরক চার্জশিটে তার নাম যুক্ত করে তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির আবেদন করা হয়েছে। অন্য আসামিরা জামিনে রয়েছেন। ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে গত ১৯ সেপ্টেম্বর অধিকতর তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। আগামী ৪ অক্টোবর মামলার ধার্য তারিখ রয়েছে। ওই দিন সম্পূরক অভিযোগপত্র বিচারকের কাছে উপস্থাপন করা হবে। এদিকে আগের চার্জশিটভুক্ত আরেক আসামি তান্না ওরফে তানহা ওরফে মুজাহিদ আজমি তান্না মারা যাওয়ায় তাকে মামলার অব্যাহতি চেয়ে আবেদন করা হয়েছে।

২০২৩ সালের ১ জানুয়ারি ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রেজাউল করিম চৌধুরীর আদালত মামলাটি অধিকতর তদন্তের জন্য মহানগর গোয়েন্দা পুলিশকে নির্দেশ দেন। ২০২১ সালের ১৮ জানুয়ারি মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির পুলিশ পরিদর্শক মো. আবদুর রউফ অভিযোগপত্র দাখিল করেন। ছাত্রলীগ নেতাসহ ৯ জনের নামে এই অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। সম্পূরক অভিযোগপত্র থেকে তান্না ওরফে তানহা ওরফে মুজাহিদ আজমি তান্নাকে বাদ দেওয়া হয়েছে। কারণ হিসেবে বলা হয়েছে তিনি ইতিমধ্যে মারা গেছেন। 

আদালত ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ২০২২ সালের ২৮ মার্চ এ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। একই বছরের ৪ ডিসেম্বর এ মামলায় ছয় জনের সাক্ষ্যগ্রহণ সম্পন্ন হয়। তাদের মধ্যে সাক্ষী ড. বদিউল আলম মজুমদার, খুশি বেগম ও মাহবুবুল আলম মজুমদার জবানবন্দিতে জনৈক ইশতিয়াক মাহমুদের নাম উল্লেখ করেন। ২৭ ডিসেম্বর আদালত এ মামলাটি সাক্ষ্যগ্রহণ পর্যায় থেকে উত্তোলন করে অধিকতর তদন্তের স্বার্থে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য ঢাকার সিএমএম আদালতে পাঠান।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ৪ আগস্ট তৎকালীন মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদারের মোহাম্মদপুরের বাসায় নৈশভোজে অংশ নেন। নৈশভোজ শেষে বার্নিকাট রাত ১১টার দিকে ফেরার পথে অজ্ঞাত ৩০-৪০ জন সশস্ত্র ব্যক্তি রাষ্ট্রদূতের গাড়িতে হামলা চালান। সুজন সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার ওই বছর ১০ আগস্ট বাদী হয়ে মোহাম্মদপুর থানায় মামলা করেন।