ঢাকা , শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইসরাইলি চরমপন্থীদের হত্যাতালিকায় আল-আকসা মসজিদের ইমামের নাম

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৮:২৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৪ অক্টোবর ২০২৩
  • 131

অনলাইন ডেস্ক :  আল-আকসা মসজিদের ইমাম শেখ ইকরিমা সাবরিকে ইসরাইলি চরম ডানপন্থী ইহুদিদের টেলিগ্রাম হিটলিস্টে রাখা হয়েছে। এ হত্যাতালিকায় ইসরাইল, পশ্চিম তীর এবং পূর্ব জেরুজালেমের আরও কয়েক ডজন ফিলিস্তিনির নাম রয়েছে। খবর মিডল ইস্ট আই। 

ইসরাইলি টেলিগ্রাম চ্যানেলে তালিকায় রাখা ব্যক্তিদের হত্যা করার আহবান জানানো হয়েছে। তালিকায় রাখা ব্যক্তিদের নাৎসি হিসেবে উল্লেখ করে বলা হয়েছে, এসব ব্যক্তি এখনো অবাধে ঘুড়ে বেড়াচ্ছে এবং তাদের এখনো নির্মূল করা হয়নি। 

আল-আকসা মসজিদের ইমাম শেখ ইকরিমা সাবরির দলের প্রধান খালেদ জাবারকা মিডল ইস্ট আইকে বলেন, সাবরি তার বিরুদ্ধে হুমকি সম্পর্কে সচেতন রয়েছেন। ইসরাইলি সরকারের অন্তর্গত উপাদানগুলোর সমর্থিত চরমপন্থী ইহুদি দলগুলো এ ধরনের উস্কানি দিচ্ছে। 

জাবারকা বলেন, সাবরি জর্ডান কিংডম, জেরুজালেমের পবিত্র স্থানগুলোর তত্ত্বাবধায়ক এবং জেরুজালেমের আরব কনস্যুলেটের সঙ্গে তাদের পরিস্থিতির তীব্রতা সম্পর্কে আপডেট করার জন্য যোগাযোগ করেছিলেন। তার বিরুদ্ধে চরম ডানপন্থী ইহুদিদের উস্কানি স্বচ্ছ এবং বিপজ্জনক। প্রায় এক বছর ধরে শেখ ইকরিমা ক্রমাগত উস্কানির সম্মুখীন হয়েছেন, এ ইহুদি চরমপন্থী গোষ্ঠীগুলো সরাসরি তাকে হত্যার প্ররোচনা দিয়ে যাচ্ছে। 

টেলিগ্রাম চ্যানেলে চিহ্নিত অন্যদের মধ্যে রয়েছে ধর্মীয় নেতা, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, সাংবাদিক, সরকারি কর্মকর্তা এবং ছাত্রনেতা, সেইসঙ্গে হামাস এবং ফিলিস্তিনি যোদ্ধাদের সদস্য।

৮৫ বছর বয়সী শেখ ইকরাম সাবরি জেরুজালেমের সাবেক প্রধান মুফতি, সুপ্রিম ইসলামিক কাউন্সিলের প্রধান এবং আল-আকসার প্রধান ইমামদের একজন। তিনি ১৯৭০ এর দশকের শুরু থেকে সেখানে শুক্রবারের খুতবা দিয়েছেন এবং ইসরাইলি বাহিনী তাকে বেশ কয়েকবার গ্রেফতার করেছে।

ইহুদিদের চ্যানেলে তাকে ইসরাইল রাষ্ট্রকে ধ্বংস করার পরিকল্পনায় ইরান, হামাস এবং হিজবুল্লাহর নেতাদের সঙ্গে অংশীদার এবং জেরুজালেমের প্রধান নাৎসি হিসেবে বর্ণনা করেছে। এমনকি চ্যানেলটি সাবরির বাড়ির জন্য জিপিএস লিংক দিয়ে আক্রমণ করার আহ্বান জানায়।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

জননিরাপত্তা বিভাগের নতুন সচিব হলেন জাহাঙ্গীর আলম

ইসরাইলি চরমপন্থীদের হত্যাতালিকায় আল-আকসা মসজিদের ইমামের নাম

আপডেট সময় ০৮:২৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৪ অক্টোবর ২০২৩

অনলাইন ডেস্ক :  আল-আকসা মসজিদের ইমাম শেখ ইকরিমা সাবরিকে ইসরাইলি চরম ডানপন্থী ইহুদিদের টেলিগ্রাম হিটলিস্টে রাখা হয়েছে। এ হত্যাতালিকায় ইসরাইল, পশ্চিম তীর এবং পূর্ব জেরুজালেমের আরও কয়েক ডজন ফিলিস্তিনির নাম রয়েছে। খবর মিডল ইস্ট আই। 

ইসরাইলি টেলিগ্রাম চ্যানেলে তালিকায় রাখা ব্যক্তিদের হত্যা করার আহবান জানানো হয়েছে। তালিকায় রাখা ব্যক্তিদের নাৎসি হিসেবে উল্লেখ করে বলা হয়েছে, এসব ব্যক্তি এখনো অবাধে ঘুড়ে বেড়াচ্ছে এবং তাদের এখনো নির্মূল করা হয়নি। 

আল-আকসা মসজিদের ইমাম শেখ ইকরিমা সাবরির দলের প্রধান খালেদ জাবারকা মিডল ইস্ট আইকে বলেন, সাবরি তার বিরুদ্ধে হুমকি সম্পর্কে সচেতন রয়েছেন। ইসরাইলি সরকারের অন্তর্গত উপাদানগুলোর সমর্থিত চরমপন্থী ইহুদি দলগুলো এ ধরনের উস্কানি দিচ্ছে। 

জাবারকা বলেন, সাবরি জর্ডান কিংডম, জেরুজালেমের পবিত্র স্থানগুলোর তত্ত্বাবধায়ক এবং জেরুজালেমের আরব কনস্যুলেটের সঙ্গে তাদের পরিস্থিতির তীব্রতা সম্পর্কে আপডেট করার জন্য যোগাযোগ করেছিলেন। তার বিরুদ্ধে চরম ডানপন্থী ইহুদিদের উস্কানি স্বচ্ছ এবং বিপজ্জনক। প্রায় এক বছর ধরে শেখ ইকরিমা ক্রমাগত উস্কানির সম্মুখীন হয়েছেন, এ ইহুদি চরমপন্থী গোষ্ঠীগুলো সরাসরি তাকে হত্যার প্ররোচনা দিয়ে যাচ্ছে। 

টেলিগ্রাম চ্যানেলে চিহ্নিত অন্যদের মধ্যে রয়েছে ধর্মীয় নেতা, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, সাংবাদিক, সরকারি কর্মকর্তা এবং ছাত্রনেতা, সেইসঙ্গে হামাস এবং ফিলিস্তিনি যোদ্ধাদের সদস্য।

৮৫ বছর বয়সী শেখ ইকরাম সাবরি জেরুজালেমের সাবেক প্রধান মুফতি, সুপ্রিম ইসলামিক কাউন্সিলের প্রধান এবং আল-আকসার প্রধান ইমামদের একজন। তিনি ১৯৭০ এর দশকের শুরু থেকে সেখানে শুক্রবারের খুতবা দিয়েছেন এবং ইসরাইলি বাহিনী তাকে বেশ কয়েকবার গ্রেফতার করেছে।

ইহুদিদের চ্যানেলে তাকে ইসরাইল রাষ্ট্রকে ধ্বংস করার পরিকল্পনায় ইরান, হামাস এবং হিজবুল্লাহর নেতাদের সঙ্গে অংশীদার এবং জেরুজালেমের প্রধান নাৎসি হিসেবে বর্ণনা করেছে। এমনকি চ্যানেলটি সাবরির বাড়ির জন্য জিপিএস লিংক দিয়ে আক্রমণ করার আহ্বান জানায়।