ঢাকা , শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রকাশ্যে এলেন বরখাস্ত হওয়া সাবেক ডিএজি এমরান

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৩:০৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৬ অক্টোবর ২০২৩
  • 63

অনলাইন ডেস্ক :  প্রায় এক মাসের বেশি সময় পর প্রকাশ্যে এলেন বরখাস্ত হওয়া ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল (ডিএজি) এমরান আহমেদ ভূঁইয়া। সোমবার এনেক্স ভবনের সামনে তাকে দেখা যায়। এ সময় বিচারপ্রার্থী হিসেবে ক্লায়েন্টের সঙ্গে কথা বলছিলেন তিনি। সাবেক এ ডিএজি জানান, ব্যক্তিগত মামলার কারণে সুপ্রিমকোর্টে এসেছেন তিনি। বরখাস্ত করার পর আজই প্রকাশ্য এলেন তিনি। এর আগে ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে করা মামলার বিষয়ে উদ্বেগ জানিয়ে সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে খোলা চিঠি পাঠান ১০৪ জন নোবেল বিজয়ীসহ বিশ্বের ১৭৫ বিশিষ্ট ব্যক্তি। 

ওই খোলা চিঠির বিপরীতে অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয় থেকে প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি দেওয়ার কথা উল্লেখ করে ৪ সেপ্টেম্বর ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এমরান আহমেদ সাংবাদিকদের বলেন, অ্যাটর্নি জেনারেল অফিসে কর্মরত সবাইকে এতে সই করার জন্য নোটিশ দেওয়া হয়েছে। আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি, এ বিবৃতিতে সই করব না। এর পরই আলোচনায় আসেন এমরান ভূঁইয়া। পর দিন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক জানান, চিঠিতে সই না করার বক্তব্য দিয়ে এমরান শৃঙ্খলা ভঙ্গ করেছেন। এর পর ৮ সেপ্টেম্বর আইনমন্ত্রী জানান, ডিএজি এমরান আহমেদ ভূঁইয়াকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

পরে ওই দিনই এমরান স্ত্রী ও তিন মেয়েকে নিয়ে মার্কিন দূতাবাসের ফটকে পাশের অভ্যর্থনাকক্ষে গিয়ে অবস্থান নেন। সন্ধ্যার পর পুলিশ পাহারায় বাসায় ফেরেন তিনি। শুক্রবার রাতে তিনি ফোনে গণমাধ্যমকে বলেন, তাকে গ্রেফতার করা হতে পারে, এ আশঙ্কা থেকে মার্কিন দূতাবাসে গিয়েছিলেন। পরে তার কোনো ক্ষতি হবে না, সে বিষয়ে আশ্বস্ত হয়ে বাসায় ফিরেছেন তিনি।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

মিয়ানমার থেকে গুলি হলে আমরাও পাল্টা গুলি করব : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশ্যে এলেন বরখাস্ত হওয়া সাবেক ডিএজি এমরান

আপডেট সময় ০৩:০৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৬ অক্টোবর ২০২৩

অনলাইন ডেস্ক :  প্রায় এক মাসের বেশি সময় পর প্রকাশ্যে এলেন বরখাস্ত হওয়া ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল (ডিএজি) এমরান আহমেদ ভূঁইয়া। সোমবার এনেক্স ভবনের সামনে তাকে দেখা যায়। এ সময় বিচারপ্রার্থী হিসেবে ক্লায়েন্টের সঙ্গে কথা বলছিলেন তিনি। সাবেক এ ডিএজি জানান, ব্যক্তিগত মামলার কারণে সুপ্রিমকোর্টে এসেছেন তিনি। বরখাস্ত করার পর আজই প্রকাশ্য এলেন তিনি। এর আগে ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে করা মামলার বিষয়ে উদ্বেগ জানিয়ে সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে খোলা চিঠি পাঠান ১০৪ জন নোবেল বিজয়ীসহ বিশ্বের ১৭৫ বিশিষ্ট ব্যক্তি। 

ওই খোলা চিঠির বিপরীতে অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয় থেকে প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি দেওয়ার কথা উল্লেখ করে ৪ সেপ্টেম্বর ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এমরান আহমেদ সাংবাদিকদের বলেন, অ্যাটর্নি জেনারেল অফিসে কর্মরত সবাইকে এতে সই করার জন্য নোটিশ দেওয়া হয়েছে। আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি, এ বিবৃতিতে সই করব না। এর পরই আলোচনায় আসেন এমরান ভূঁইয়া। পর দিন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক জানান, চিঠিতে সই না করার বক্তব্য দিয়ে এমরান শৃঙ্খলা ভঙ্গ করেছেন। এর পর ৮ সেপ্টেম্বর আইনমন্ত্রী জানান, ডিএজি এমরান আহমেদ ভূঁইয়াকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

পরে ওই দিনই এমরান স্ত্রী ও তিন মেয়েকে নিয়ে মার্কিন দূতাবাসের ফটকে পাশের অভ্যর্থনাকক্ষে গিয়ে অবস্থান নেন। সন্ধ্যার পর পুলিশ পাহারায় বাসায় ফেরেন তিনি। শুক্রবার রাতে তিনি ফোনে গণমাধ্যমকে বলেন, তাকে গ্রেফতার করা হতে পারে, এ আশঙ্কা থেকে মার্কিন দূতাবাসে গিয়েছিলেন। পরে তার কোনো ক্ষতি হবে না, সে বিষয়ে আশ্বস্ত হয়ে বাসায় ফিরেছেন তিনি।