ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

স্বাধীনতা বিরোধীরা যখন ক্ষমতায় বসে তখন কীভাবে দেশের উন্নয়ন হয়, প্রশ্ন প্রধানমন্ত্রীর

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৩:০৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর ২০২৩
  • 60

অনলাইন ডেস্ক : স্বাধীনতা বিরোধীরা যখন ক্ষমতায় বসে তখন কীভাবে দেশের উন্নয়ন হয়? বিএনপি নেতাকর্মীদের উদ্দেশে এমন প্রশ্ন তুলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপি একটি সন্ত্রাসী দল। তারা প্রতিদিন আন্দোলন করছে। তারা নাকি আমাদেরকে হটিয়ে দেবে। ঠিক আছে তারা আন্দোলন করতে থাকুক। আমার তো জনগণ আছে। জনগণের কল্যাণ করাই আমার লক্ষ্য।’

বৃহস্পতিবার (১৯ অক্টোবর) সকালে রাজধানীর তেজগাঁওয়ের সড়ক ভবনে ১৫০টি সেতু ও ১৪টি ওভার পাস উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের আওতায় স্বয়ংক্রিয় মোটর যান ফিটনেস পরীক্ষা কেন্দ্র, ডিটিসিএ ভবন, বিআরটিসির ময়মনসিংহ বাস ডিপো ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, ময়মনসিংহ জেলার কেউট খালি ও রহমতপুর সেতুর নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ও সড়ক দুর্ঘটনায় হতাহতদের মধ্যে ক্ষতিপূরণ প্রদান করা হয়।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করার রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জাতীয় জীবন থেকে ২১ বছর চলে গেছে। এই ২১ বছরে দেশের মানুষ উন্নয়ন বঞ্চিত হয়েছে। তারপর ১৯৯৬ সালে আমরা ক্ষমতায় এসে দেশের উন্নয়ন করি। আওয়ামী লীগ যখনই ক্ষমতায় এসেছে, তখনই আমরা দেশের মানুষের জন্য কাজ করেছি।’

অগ্নি সন্ত্রাসের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘এখন যারা আন্দোলন করছে, তারা যা করছে করুক। কিন্তু কেউ যদি গাড়িতে আগুন দেওয়ার চেষ্টা করে তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। আমি বলে দিয়েছি, মানুষের যাতে কেউ কোনো ক্ষতি করতে না পারে, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।’

এ সময় বিদ্যুৎ সাশ্রয় করার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

স্বাধীনতা বিরোধীরা যখন ক্ষমতায় বসে তখন কীভাবে দেশের উন্নয়ন হয়, প্রশ্ন প্রধানমন্ত্রীর

আপডেট সময় ০৩:০৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর ২০২৩

অনলাইন ডেস্ক : স্বাধীনতা বিরোধীরা যখন ক্ষমতায় বসে তখন কীভাবে দেশের উন্নয়ন হয়? বিএনপি নেতাকর্মীদের উদ্দেশে এমন প্রশ্ন তুলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপি একটি সন্ত্রাসী দল। তারা প্রতিদিন আন্দোলন করছে। তারা নাকি আমাদেরকে হটিয়ে দেবে। ঠিক আছে তারা আন্দোলন করতে থাকুক। আমার তো জনগণ আছে। জনগণের কল্যাণ করাই আমার লক্ষ্য।’

বৃহস্পতিবার (১৯ অক্টোবর) সকালে রাজধানীর তেজগাঁওয়ের সড়ক ভবনে ১৫০টি সেতু ও ১৪টি ওভার পাস উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের আওতায় স্বয়ংক্রিয় মোটর যান ফিটনেস পরীক্ষা কেন্দ্র, ডিটিসিএ ভবন, বিআরটিসির ময়মনসিংহ বাস ডিপো ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, ময়মনসিংহ জেলার কেউট খালি ও রহমতপুর সেতুর নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ও সড়ক দুর্ঘটনায় হতাহতদের মধ্যে ক্ষতিপূরণ প্রদান করা হয়।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করার রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জাতীয় জীবন থেকে ২১ বছর চলে গেছে। এই ২১ বছরে দেশের মানুষ উন্নয়ন বঞ্চিত হয়েছে। তারপর ১৯৯৬ সালে আমরা ক্ষমতায় এসে দেশের উন্নয়ন করি। আওয়ামী লীগ যখনই ক্ষমতায় এসেছে, তখনই আমরা দেশের মানুষের জন্য কাজ করেছি।’

অগ্নি সন্ত্রাসের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘এখন যারা আন্দোলন করছে, তারা যা করছে করুক। কিন্তু কেউ যদি গাড়িতে আগুন দেওয়ার চেষ্টা করে তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। আমি বলে দিয়েছি, মানুষের যাতে কেউ কোনো ক্ষতি করতে না পারে, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।’

এ সময় বিদ্যুৎ সাশ্রয় করার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।