ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাবনার গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী ফয়সাল আহমেদের বিরুদ্ধে  অনিয়মের অভিযোগ

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৫:২৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২১ অক্টোবর ২০২৩
  • 295

অনলাইন ডেস্ক : পাবনার রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রকল্পে RO-Water Purifier Tender Re-evaluation- এ ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। মোটা অংকের উৎকোচের বিনিময়ে পাবনা গণপূর্ত জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী ফয়সাল আহমেদ তার ইচ্ছেমতো ঠিকাদারকে কাজ পাইয়ে দেয়ার চেষ্টা করছেন। নির্বাহী প্রকৌশলী ফয়সাল আহমেদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ এনে প্রধান প্রকৌশলী গণপূর্ত অধিদপ্তরের পূর্ত ভবন সেগুনবাগিচা ঢাকা বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন মেসার্স মোনালিসা নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, Reverse Osmosis Water Purifier সুনামধন্য তিনটি Brand (kent/unilever/vapor water purifier) PWD rate schedule ভুক্ত। Tender ID 867196, Re tender Id 852769 এর Tender Eligibility তে (vi) নং উল্লেখ ছিল “A manufacture’s Authorisation Letter is required for purifier Listed in the Price and delivery schedule for Goods and related service (section-5)” যেসব কোম্পানী উক্ত টেন্ডারে অংশ গ্রহণ করেছে তার মধ্যে শুধুমাত্র MAC International ব্যতীত অন্য সকল কোম্পানী ভূয়া Authorisation দিয়ে টেন্ডার সাবমিট করেছে।

টেন্ডারে যেসব পণ্য চাওয়া হয়েছে, রেট সিডিউল ভুক্ত ব্র্যান্ডগুলোর মূল্য প্রতি পিছ ১৯,২৬৯/ টাকা। অথচ ১, ২, ৩ নিম্ন দরদাতারা প্রতি পিচ রেট কোড করেছে ১৩ হাজার বা ১৪ হাজার টাকা। সরকারী ট্যাক্স-ভ্যাট ও অন্যান্য খরচ বাদ দেওয়ার পর থাকবে ১০ হাজার বা ১১ হাজার টাকা। বর্তমান বাজারের চাহিদা মোতাবেক নিম্ন দরদাতারা কোনো ভাবেই কোয়ালিটি সম্পন্ন পন্য সরবরাহ করতে পারবেন না। কোয়ালিটি সম্পন্ন পন্য ব্যবহার না করলে তা দিয়ে ১ বছর সার্ভিস দেয়া একেবারেই সম্ভব নয়। Water Purifier গুলো বাংলাদেশের বসবাসরত বিদেশীদের হাউজে ব্যবহার করা হবে। সেক্ষেত্রে নিম্নমানের পণ্য হলে তা ঘনঘন নষ্ট হবে। এতে করে আমাদের দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হওয়ার গুরুতর আশংকা দেখা দিয়েছে।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, ঠিকাদারের সঙ্গে যোগসাজসে পাবনার বর্তমান গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী ফয়সাল আহমেদ যে কোম্পানীর নামে সুপারিশসহ সিএস অনুমোদনের জন্য পাঠিয়েছেন তাদের উক্ত কাজের অভিজ্ঞতার কোন সার্টিফিকেট নেই, Authorisation ও ভূয়া। এদিকে নির্বাহী প্রকৌশলী ফয়সাল আহমেদ তার পছন্দের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে কাজ ভাগিয়ে দেওয়ার জন্য নানা কৌশল অবলম্বন করছেন। এর আগেও তিনি নানা অনিয়ম দুর্নীতির মাধ্যমে শত শত কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। তখন যত ধরনের টেন্ডার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি হয়েছে তা ফয়সালের মাধ্যমে সম্পূর্ণ হয়েছে বলে একটি সূত্র জানায়। সাবেক প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল আলমের সময় তিনি ঢাকা মেট্রো অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলীর স্টাফ অফিসার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তার বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে একটি অভিযোগ দুদকে দেওয়া হয়েছে, তা তদন্তনাধীন।

জনসাধারনের মতে, নিম্ন দরদাতারা (kent/unilever/vapor water purifier) কাজ পেলে নিম্নমানের পন্য সরবরাহ করবে। তাই উক্ত দরপত্রগুলো পুনরায় সঠিকভাবে যাচাই-বাছাই করে উপযুক্ত ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে কার্যাদেশ প্রদান করে রেট সিডিউল ভুক্ত RO-Water Purifier ক্রয় নিশ্চিত করা উচিত। পাবনার রূপপুর পারমাণবিক পাওয়ার প্লান্টের মত জায়গায় নিম্নমানের পন্য ব্যবহার করলে তা মিডিয়ায় ভাইরাল হতে পারে। এতে করে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হবে।

পাবনার বর্তমান গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী ফয়সাল আহমেদকে বারবার ফোন করলেও তার ফোন বন্ধ থাকায় কোন বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

চলমান…

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

সিলেটে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে

পাবনার গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী ফয়সাল আহমেদের বিরুদ্ধে  অনিয়মের অভিযোগ

আপডেট সময় ০৫:২৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২১ অক্টোবর ২০২৩

অনলাইন ডেস্ক : পাবনার রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রকল্পে RO-Water Purifier Tender Re-evaluation- এ ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। মোটা অংকের উৎকোচের বিনিময়ে পাবনা গণপূর্ত জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী ফয়সাল আহমেদ তার ইচ্ছেমতো ঠিকাদারকে কাজ পাইয়ে দেয়ার চেষ্টা করছেন। নির্বাহী প্রকৌশলী ফয়সাল আহমেদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ এনে প্রধান প্রকৌশলী গণপূর্ত অধিদপ্তরের পূর্ত ভবন সেগুনবাগিচা ঢাকা বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন মেসার্স মোনালিসা নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, Reverse Osmosis Water Purifier সুনামধন্য তিনটি Brand (kent/unilever/vapor water purifier) PWD rate schedule ভুক্ত। Tender ID 867196, Re tender Id 852769 এর Tender Eligibility তে (vi) নং উল্লেখ ছিল “A manufacture’s Authorisation Letter is required for purifier Listed in the Price and delivery schedule for Goods and related service (section-5)” যেসব কোম্পানী উক্ত টেন্ডারে অংশ গ্রহণ করেছে তার মধ্যে শুধুমাত্র MAC International ব্যতীত অন্য সকল কোম্পানী ভূয়া Authorisation দিয়ে টেন্ডার সাবমিট করেছে।

টেন্ডারে যেসব পণ্য চাওয়া হয়েছে, রেট সিডিউল ভুক্ত ব্র্যান্ডগুলোর মূল্য প্রতি পিছ ১৯,২৬৯/ টাকা। অথচ ১, ২, ৩ নিম্ন দরদাতারা প্রতি পিচ রেট কোড করেছে ১৩ হাজার বা ১৪ হাজার টাকা। সরকারী ট্যাক্স-ভ্যাট ও অন্যান্য খরচ বাদ দেওয়ার পর থাকবে ১০ হাজার বা ১১ হাজার টাকা। বর্তমান বাজারের চাহিদা মোতাবেক নিম্ন দরদাতারা কোনো ভাবেই কোয়ালিটি সম্পন্ন পন্য সরবরাহ করতে পারবেন না। কোয়ালিটি সম্পন্ন পন্য ব্যবহার না করলে তা দিয়ে ১ বছর সার্ভিস দেয়া একেবারেই সম্ভব নয়। Water Purifier গুলো বাংলাদেশের বসবাসরত বিদেশীদের হাউজে ব্যবহার করা হবে। সেক্ষেত্রে নিম্নমানের পণ্য হলে তা ঘনঘন নষ্ট হবে। এতে করে আমাদের দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হওয়ার গুরুতর আশংকা দেখা দিয়েছে।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, ঠিকাদারের সঙ্গে যোগসাজসে পাবনার বর্তমান গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী ফয়সাল আহমেদ যে কোম্পানীর নামে সুপারিশসহ সিএস অনুমোদনের জন্য পাঠিয়েছেন তাদের উক্ত কাজের অভিজ্ঞতার কোন সার্টিফিকেট নেই, Authorisation ও ভূয়া। এদিকে নির্বাহী প্রকৌশলী ফয়সাল আহমেদ তার পছন্দের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে কাজ ভাগিয়ে দেওয়ার জন্য নানা কৌশল অবলম্বন করছেন। এর আগেও তিনি নানা অনিয়ম দুর্নীতির মাধ্যমে শত শত কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। তখন যত ধরনের টেন্ডার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি হয়েছে তা ফয়সালের মাধ্যমে সম্পূর্ণ হয়েছে বলে একটি সূত্র জানায়। সাবেক প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল আলমের সময় তিনি ঢাকা মেট্রো অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলীর স্টাফ অফিসার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তার বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে একটি অভিযোগ দুদকে দেওয়া হয়েছে, তা তদন্তনাধীন।

জনসাধারনের মতে, নিম্ন দরদাতারা (kent/unilever/vapor water purifier) কাজ পেলে নিম্নমানের পন্য সরবরাহ করবে। তাই উক্ত দরপত্রগুলো পুনরায় সঠিকভাবে যাচাই-বাছাই করে উপযুক্ত ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে কার্যাদেশ প্রদান করে রেট সিডিউল ভুক্ত RO-Water Purifier ক্রয় নিশ্চিত করা উচিত। পাবনার রূপপুর পারমাণবিক পাওয়ার প্লান্টের মত জায়গায় নিম্নমানের পন্য ব্যবহার করলে তা মিডিয়ায় ভাইরাল হতে পারে। এতে করে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হবে।

পাবনার বর্তমান গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী ফয়সাল আহমেদকে বারবার ফোন করলেও তার ফোন বন্ধ থাকায় কোন বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

চলমান…