ঢাকা , শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কোন গলিতে কে আশ্রয় নেয় দেখে নেব বিএনপিকে ওবায়দুল কাদের

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৮:২০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৫ অক্টোবর ২০২৩
  • 34

সিনিয়র রিপোর্টার : বিএনপি নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের উদ্দেশে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের  বলেন, ‘গয়েশ্বর বাবু বলেছেন অনুমতি না দিলে অলি-গলি দখল করবে। তাহলে নাকি সব দরজা খুলে যাবে। মনে নাই, আপনি কোরাল মাছের ঝোল খেয়ে আসছেন! এবার আপনার কপাল খারাপ। আমরা আটঘাট বেঁধে নেমেছি। কোন গলিতে কে আশ্রয় নেয় তা আমরা দেখে নেব। অলি-গলিতেও পালাবার পথ পাবেন না।’

বুধবার (২৫ অক্টোবর) বিকালে তেজগাঁও ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ ভবনে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

২৮ অক্টোবর নয়াপল্টনে সমাবেশের অনুমতি না পেলে বিএনপির নেতাকর্মীরা অলিগলিতে ছড়িয়ে পড়বেন বলে বক্তব্য দেন গয়েশ্বর। তিনি ‘সোজা কথা, আমরা সমাবেশ করব। যেখানে (নয়াপল্টনে) বসার কথা সেখানে আমরা না বসলে সারা ঢাকার অলি-গলিতে ছড়িয়ে পড়ব। যার যা আছে তা নিয়ে। দেখবেন প্রত্যেক মানুষ ঘরের দরজা খুলে দিয়ে রাস্তায় নেমে আসবে। এখন টের পাচ্ছে না, তখন টের পাবে।’ 

গয়েশ্বরের এমন বক্তব্যের প্রেক্ষিতে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন- অনুমতি না দিলে অলি-গলি দখল করবেন। অলি-গলি দখল করলে নাকি সব দরজা খুলে যাবে গয়েশ্বর বাবুকে স্বাগত জানাতে। মনে নাই, আপনি কোরাল মাছের ঝোল খেয়ে আসছেন! এবার আপনার কপাল খারাপ। আমরা আটঘাট বেঁধে নেমেছি। অলি-গলিতেও পালাবার পথ পাবেন না।’

দলের নেতাকর্মীদের রাজধানীর অলিগলি পাহারা দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের  বলেন, ২৭ তারিখ (২৭ অক্টোবর) থেকে চোখে ঘুম থাকবে না। প্রয়োজনে নির্ঘুম রাত কাটাতে হবে। যেখানে আমার অস্তিত্বের প্রশ্ন সেখানে ঘুমিয়ে কী করব। কোনো হুমকি ধামকিতে ভয় পায় না আওয়ামী লীগ। আক্রমণ করলে পাল্টা আক্রমণ করে ২৮ তারিখ সমাবেশের মধ্য দিয়ে বিএনপিকে ঘেরাও করে পরাজিত করা হবে। নরম কথায় বিশ্বাস করবেন না। বিএনপির মুখে মধু অন্তরে বিষ। এরা বিশ্বাসঘাতক। এই দলকে বিশ্বাস করা যায় না। নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করলে দাঁতভাঙা জবাব দেওয়া হবে। প্রয়োজনে সতর্ক পাহারা থাকতে হবে।’

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় রেমাল : সতর্কতায় উপকূলে মাইকিং করেছে কোস্ট গার্ডের সদস্যরা

কোন গলিতে কে আশ্রয় নেয় দেখে নেব বিএনপিকে ওবায়দুল কাদের

আপডেট সময় ০৮:২০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৫ অক্টোবর ২০২৩

সিনিয়র রিপোর্টার : বিএনপি নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের উদ্দেশে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের  বলেন, ‘গয়েশ্বর বাবু বলেছেন অনুমতি না দিলে অলি-গলি দখল করবে। তাহলে নাকি সব দরজা খুলে যাবে। মনে নাই, আপনি কোরাল মাছের ঝোল খেয়ে আসছেন! এবার আপনার কপাল খারাপ। আমরা আটঘাট বেঁধে নেমেছি। কোন গলিতে কে আশ্রয় নেয় তা আমরা দেখে নেব। অলি-গলিতেও পালাবার পথ পাবেন না।’

বুধবার (২৫ অক্টোবর) বিকালে তেজগাঁও ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ ভবনে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

২৮ অক্টোবর নয়াপল্টনে সমাবেশের অনুমতি না পেলে বিএনপির নেতাকর্মীরা অলিগলিতে ছড়িয়ে পড়বেন বলে বক্তব্য দেন গয়েশ্বর। তিনি ‘সোজা কথা, আমরা সমাবেশ করব। যেখানে (নয়াপল্টনে) বসার কথা সেখানে আমরা না বসলে সারা ঢাকার অলি-গলিতে ছড়িয়ে পড়ব। যার যা আছে তা নিয়ে। দেখবেন প্রত্যেক মানুষ ঘরের দরজা খুলে দিয়ে রাস্তায় নেমে আসবে। এখন টের পাচ্ছে না, তখন টের পাবে।’ 

গয়েশ্বরের এমন বক্তব্যের প্রেক্ষিতে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন- অনুমতি না দিলে অলি-গলি দখল করবেন। অলি-গলি দখল করলে নাকি সব দরজা খুলে যাবে গয়েশ্বর বাবুকে স্বাগত জানাতে। মনে নাই, আপনি কোরাল মাছের ঝোল খেয়ে আসছেন! এবার আপনার কপাল খারাপ। আমরা আটঘাট বেঁধে নেমেছি। অলি-গলিতেও পালাবার পথ পাবেন না।’

দলের নেতাকর্মীদের রাজধানীর অলিগলি পাহারা দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের  বলেন, ২৭ তারিখ (২৭ অক্টোবর) থেকে চোখে ঘুম থাকবে না। প্রয়োজনে নির্ঘুম রাত কাটাতে হবে। যেখানে আমার অস্তিত্বের প্রশ্ন সেখানে ঘুমিয়ে কী করব। কোনো হুমকি ধামকিতে ভয় পায় না আওয়ামী লীগ। আক্রমণ করলে পাল্টা আক্রমণ করে ২৮ তারিখ সমাবেশের মধ্য দিয়ে বিএনপিকে ঘেরাও করে পরাজিত করা হবে। নরম কথায় বিশ্বাস করবেন না। বিএনপির মুখে মধু অন্তরে বিষ। এরা বিশ্বাসঘাতক। এই দলকে বিশ্বাস করা যায় না। নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করলে দাঁতভাঙা জবাব দেওয়া হবে। প্রয়োজনে সতর্ক পাহারা থাকতে হবে।’