ঢাকা , সোমবার, ১১ ডিসেম্বর ২০২৩, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বিএনপি ক্ষমতায় এলে দেশে দুর্নীতি-লুটপাট হয়: প্রধানমন্ত্রী

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৬:১৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২৩
  • 17

সিনিয়র রিপোর্টার : আমার বাবাকে (বঙ্গবন্ধু) ওই জিয়াই (জিয়াউর রহমান) হত্যা করেছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘বিএনপি ক্ষমতায় এলে দেশে দুর্নীতি- লুটপাট হয়।  বিএনপির আমলে মানুষ একবেলা নুনভাত খেতে পারত না। আজকে আমরা দারিদ্র্য মোকাবেলা করেছি। আশ্রয়ণ প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের মানুষের জন্য গৃহের ব্যবস্থা করেছি।’

শনিবার (২৮ অক্টোবর) চট্টগ্রামের আনোয়ারায় কেইপিজেড মাঠে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রবাসীদের আহ্বান জানিয়ে  প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যারা বিদেশে যেতে চান, দয়া করে দালালকে টাকা দিয়ে বিদেশে যাবেন না।’

টানেল যুগে বাংলাদেশের প্রবেশ ও নির্বাচনে নৌকার জয়লাভের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আজকের এই উন্নয়ন একমাত্র সম্ভব হয়েছে কারন আপনারা নৌকা মার্কায় (প্রতীক) ভোট দিয়েছেন। যখনই নৌকা ক্ষমতায় এসেছে, তখনই দেশের উন্নয়ন হয়েছে। আমরা বিনামূল্যে আপনাদেরকে চাল-ডাল-তেল দিচ্ছি। দরিদ্র ও নিম্নবিত্তদের জন্যও ব্যবস্থা করেছি। আমরা যখন দেশের উন্নয়ন করি, ওই বিএনপি-জামায়াত সবকিছু ধ্বংস করা শুরু করে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপির কাজই হচ্ছে খুন করা। খালেদা জিয়া এতিমদের টাকা না দিয়ে সেই টাকা আত্মসাৎ করেছে। তার ছেলে দশ ট্রাক অস্ত্র মামলাসহ বিভিন্ন মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত। ২০০১ সালে খালেদা জিয়া ভোট চুরি করে ক্ষমতায় এসেছিল। আজকে তারা সরকার পতনের জন্য নানা কথা বলে, নানা কর্মসূচি দেয়। কিন্তু খালেদা জিয়া ভোট চোর। আর সেই বাংলাদেশের মানুষ আন্দোলন করে তাকে পদত্যাগে বাধ্য করেছে।’

বঙ্গবন্ধু টানেল উদ্বোধন শেষে নিজ হাতে টোল দিয়ে গাড়ি বহর নিয়ে প্রথম যাত্রী হিসেবে তা ঘুরে দেখেন প্রধানমন্ত্রী। এছাড়াও জনসভাস্থলে স্মারক ডাকটিকেট, সিলমোহর ও খাম এবং স্মারক ৫০ টাকার নোট অবমুক্ত করেন তিনি।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

শিগগিরই ভারত থেকে আসছে ৫২ হাজার মেট্রিক টন পেঁয়াজ দ্রুত দেশে আনার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার

বিএনপি ক্ষমতায় এলে দেশে দুর্নীতি-লুটপাট হয়: প্রধানমন্ত্রী

আপডেট সময় ০৬:১৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২৩

সিনিয়র রিপোর্টার : আমার বাবাকে (বঙ্গবন্ধু) ওই জিয়াই (জিয়াউর রহমান) হত্যা করেছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘বিএনপি ক্ষমতায় এলে দেশে দুর্নীতি- লুটপাট হয়।  বিএনপির আমলে মানুষ একবেলা নুনভাত খেতে পারত না। আজকে আমরা দারিদ্র্য মোকাবেলা করেছি। আশ্রয়ণ প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের মানুষের জন্য গৃহের ব্যবস্থা করেছি।’

শনিবার (২৮ অক্টোবর) চট্টগ্রামের আনোয়ারায় কেইপিজেড মাঠে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রবাসীদের আহ্বান জানিয়ে  প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যারা বিদেশে যেতে চান, দয়া করে দালালকে টাকা দিয়ে বিদেশে যাবেন না।’

টানেল যুগে বাংলাদেশের প্রবেশ ও নির্বাচনে নৌকার জয়লাভের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আজকের এই উন্নয়ন একমাত্র সম্ভব হয়েছে কারন আপনারা নৌকা মার্কায় (প্রতীক) ভোট দিয়েছেন। যখনই নৌকা ক্ষমতায় এসেছে, তখনই দেশের উন্নয়ন হয়েছে। আমরা বিনামূল্যে আপনাদেরকে চাল-ডাল-তেল দিচ্ছি। দরিদ্র ও নিম্নবিত্তদের জন্যও ব্যবস্থা করেছি। আমরা যখন দেশের উন্নয়ন করি, ওই বিএনপি-জামায়াত সবকিছু ধ্বংস করা শুরু করে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপির কাজই হচ্ছে খুন করা। খালেদা জিয়া এতিমদের টাকা না দিয়ে সেই টাকা আত্মসাৎ করেছে। তার ছেলে দশ ট্রাক অস্ত্র মামলাসহ বিভিন্ন মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত। ২০০১ সালে খালেদা জিয়া ভোট চুরি করে ক্ষমতায় এসেছিল। আজকে তারা সরকার পতনের জন্য নানা কথা বলে, নানা কর্মসূচি দেয়। কিন্তু খালেদা জিয়া ভোট চোর। আর সেই বাংলাদেশের মানুষ আন্দোলন করে তাকে পদত্যাগে বাধ্য করেছে।’

বঙ্গবন্ধু টানেল উদ্বোধন শেষে নিজ হাতে টোল দিয়ে গাড়ি বহর নিয়ে প্রথম যাত্রী হিসেবে তা ঘুরে দেখেন প্রধানমন্ত্রী। এছাড়াও জনসভাস্থলে স্মারক ডাকটিকেট, সিলমোহর ও খাম এবং স্মারক ৫০ টাকার নোট অবমুক্ত করেন তিনি।