ঢাকা , শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আন্তর্জাতিক জলবায়ু বিজ্ঞানী সালিমুল হক মারা গেছেন

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৫:৫৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২৩
  • 42

সিনিয়র রিপোর্টার : ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর ক্লাইমেট চেঞ্জ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের পরিচালক বিশিষ্ট জলবায়ু পরিবর্তন বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক সালিমুল হক শনিবার (২৮ অক্টোবর) রাত ১০টার দিকে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স ছিল ৭১ বছর।

সালিমুল হক ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের (আইইউবি) অধ্যাপক  এবং যুক্তরাজ্যের ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অন এনভায়রনমেন্ট অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের (আইআইইডি) সহযোগী ছিলেন। এছাড়াও তিনি ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের (সিভিএফ) বিশেষজ্ঞ উপদেষ্টা গ্রুপের সভাপতি এবং নেদারল্যান্ডসে সদর দপ্তর গ্লোবাল সেন্টার অন অ্যাডাপটেশনের (জিসিএ) স্থানীয়ভাবে পরিচালিত অভিযোজন সম্পর্কিত জ্যৈষ্ঠ উপদেষ্টা ছিলেন।

রবিবার (২৯ অক্টোবর) বাদ আসর গুলশান সোসাইটি মসজিদে তার নামাজে জানাজা হওয়ার কথা রয়েছে । পারিবারিক সূত্র ছাড়াও ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর ক্লাইমেট চেঞ্জ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (আইসিসিএডি)-র ফেসবুক পেজে তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। 

আইসিসিএডি’র পেজে বলা হয়, ‘অত্যন্ত দুঃখ ও ভারাক্রান্ত হৃদয় নিয়ে আমরা আপনাদের জানাচ্ছি যে, আমাদের পরিচালক অধ্যাপক সালিমুল হক (২৯ অক্টোবর) মারা গেছেন। তিনি একজন দূরদর্শী নেতা যিনি শুধু জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের লড়াইয়ের মশাল বাহক ছিলেন না। সমগ্র বিশ্ব সম্প্রদায়ের জন্য তাঁর অতুলনীয় কাজ বছরের পর বছর ও পরবর্তী প্রজন্মের জন্য উজ্জ্বল উদাহরণ হয়ে থাকবে।’

সালিমুল হক ১৯৫২ সালে জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি ২০২২ সালে বিজ্ঞান সাময়িকী নেচার’স ঘোষিত শীর্ষ ১০ জন প্রভাবশালী বিজ্ঞানীর একজন নির্বাচিত হন। সালিমুল হক মূলত একজন উদ্ভিদ-জীববিজ্ঞানী। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত ঢাকায় ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর ক্লাইমেট চেঞ্জ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের পরিচালকের দায়িত্বে ছিলেন। 

সালিমুল হকের বেড়ে ওঠা ইউরোপ, আফ্রিকা এবং এশিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে। বাবার কূটনৈতিক বদলির জেরে ছোট থেকেই তিনি নানা জায়গার অভিজ্ঞতা নেওয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন। জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে তাঁর গবেষণার স্বীকৃতিস্বরূপ ২০০৭ সালে তাঁকে বুর্টনি অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় রেমাল : সতর্কতায় উপকূলে মাইকিং করেছে কোস্ট গার্ডের সদস্যরা

আন্তর্জাতিক জলবায়ু বিজ্ঞানী সালিমুল হক মারা গেছেন

আপডেট সময় ০৫:৫৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২৩

সিনিয়র রিপোর্টার : ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর ক্লাইমেট চেঞ্জ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের পরিচালক বিশিষ্ট জলবায়ু পরিবর্তন বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক সালিমুল হক শনিবার (২৮ অক্টোবর) রাত ১০টার দিকে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স ছিল ৭১ বছর।

সালিমুল হক ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের (আইইউবি) অধ্যাপক  এবং যুক্তরাজ্যের ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অন এনভায়রনমেন্ট অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের (আইআইইডি) সহযোগী ছিলেন। এছাড়াও তিনি ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের (সিভিএফ) বিশেষজ্ঞ উপদেষ্টা গ্রুপের সভাপতি এবং নেদারল্যান্ডসে সদর দপ্তর গ্লোবাল সেন্টার অন অ্যাডাপটেশনের (জিসিএ) স্থানীয়ভাবে পরিচালিত অভিযোজন সম্পর্কিত জ্যৈষ্ঠ উপদেষ্টা ছিলেন।

রবিবার (২৯ অক্টোবর) বাদ আসর গুলশান সোসাইটি মসজিদে তার নামাজে জানাজা হওয়ার কথা রয়েছে । পারিবারিক সূত্র ছাড়াও ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর ক্লাইমেট চেঞ্জ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (আইসিসিএডি)-র ফেসবুক পেজে তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। 

আইসিসিএডি’র পেজে বলা হয়, ‘অত্যন্ত দুঃখ ও ভারাক্রান্ত হৃদয় নিয়ে আমরা আপনাদের জানাচ্ছি যে, আমাদের পরিচালক অধ্যাপক সালিমুল হক (২৯ অক্টোবর) মারা গেছেন। তিনি একজন দূরদর্শী নেতা যিনি শুধু জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের লড়াইয়ের মশাল বাহক ছিলেন না। সমগ্র বিশ্ব সম্প্রদায়ের জন্য তাঁর অতুলনীয় কাজ বছরের পর বছর ও পরবর্তী প্রজন্মের জন্য উজ্জ্বল উদাহরণ হয়ে থাকবে।’

সালিমুল হক ১৯৫২ সালে জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি ২০২২ সালে বিজ্ঞান সাময়িকী নেচার’স ঘোষিত শীর্ষ ১০ জন প্রভাবশালী বিজ্ঞানীর একজন নির্বাচিত হন। সালিমুল হক মূলত একজন উদ্ভিদ-জীববিজ্ঞানী। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত ঢাকায় ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর ক্লাইমেট চেঞ্জ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের পরিচালকের দায়িত্বে ছিলেন। 

সালিমুল হকের বেড়ে ওঠা ইউরোপ, আফ্রিকা এবং এশিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে। বাবার কূটনৈতিক বদলির জেরে ছোট থেকেই তিনি নানা জায়গার অভিজ্ঞতা নেওয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন। জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে তাঁর গবেষণার স্বীকৃতিস্বরূপ ২০০৭ সালে তাঁকে বুর্টনি অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়।