ঢাকা , শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করল লাতিন আমেরিকার দেশ বলিভিয়া

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৫:১৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ নভেম্বর ২০২৩
  • 49

অনলাইন ডেস্ক :  গাজায় হামলার কারণে ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে লাতিন আমেরিকার দেশ বলিভিয়া। পাশাপাশি তাদের প্রতিবেশী কলম্বিয়া এবং চিলিও মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি থেকে তাদের রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার করেছে। খবর রয়টার্সের। প্রথম দেশ হিসেবে বলিভিয়া সক্রিয়ভাবে গাজা যুদ্ধের জন্য ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে। দেশটির ডেপুটি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্রেডি মামানি এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, বলিভিয়া গাজা উপত্যকায় সংঘটিত আগ্রাসী এবং অসমতাপূর্ণ ইসরায়েলি সামরিক হামলার প্রত্যাখ্যান এবং নিন্দা জানিয়ে ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। দক্ষিণ আমেরিকার আরও তিনটি দেশ গাজায় ইসরায়েলের হামলার এবং ফিলিস্তিনি নাগরিকদের মৃত্যুর নিন্দা জানিয়েছে। তারা যুদ্ধবিরতিরও আহ্বান জানিয়েছিল। পাশাপাশি বলিভিয়া এবং চিলি জোনে মানবিক সহায়তা পাঠানোর জন্য চাপ দিয়েছে এবং ইসরায়েলকে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনের জন্য অভিযুক্ত করেছে।

কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট গুস্তাভো পেট্রো এক্স-এ একটি পোস্টে হামলাকে ‘ফিলিস্তিনি জনগণের গণহত্যা’ বলে অভিহিত করেছেন। ইসরায়েলের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাৎক্ষণিকভাবে মন্তব্য করার অনুরোধের জবাব দেয়নি। মেক্সিকো এবং ব্রাজিলের মতো দক্ষিণ আমেরিকার অন্যান্য দেশও যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়েছে। গত শুক্রবার ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট লুইজ ইনাসিও লুলা দা সিলভা বলেছেন, ‘আমাদের কাছে এখন যা আছে তা হল ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রীর পাগলামি, যিনি গাজা উপত্যকাকে নিশ্চিহ্ন করতে চান।’

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় রেমাল : সতর্কতায় উপকূলে মাইকিং করেছে কোস্ট গার্ডের সদস্যরা

ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করল লাতিন আমেরিকার দেশ বলিভিয়া

আপডেট সময় ০৫:১৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ নভেম্বর ২০২৩

অনলাইন ডেস্ক :  গাজায় হামলার কারণে ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে লাতিন আমেরিকার দেশ বলিভিয়া। পাশাপাশি তাদের প্রতিবেশী কলম্বিয়া এবং চিলিও মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি থেকে তাদের রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার করেছে। খবর রয়টার্সের। প্রথম দেশ হিসেবে বলিভিয়া সক্রিয়ভাবে গাজা যুদ্ধের জন্য ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে। দেশটির ডেপুটি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্রেডি মামানি এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, বলিভিয়া গাজা উপত্যকায় সংঘটিত আগ্রাসী এবং অসমতাপূর্ণ ইসরায়েলি সামরিক হামলার প্রত্যাখ্যান এবং নিন্দা জানিয়ে ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। দক্ষিণ আমেরিকার আরও তিনটি দেশ গাজায় ইসরায়েলের হামলার এবং ফিলিস্তিনি নাগরিকদের মৃত্যুর নিন্দা জানিয়েছে। তারা যুদ্ধবিরতিরও আহ্বান জানিয়েছিল। পাশাপাশি বলিভিয়া এবং চিলি জোনে মানবিক সহায়তা পাঠানোর জন্য চাপ দিয়েছে এবং ইসরায়েলকে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনের জন্য অভিযুক্ত করেছে।

কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট গুস্তাভো পেট্রো এক্স-এ একটি পোস্টে হামলাকে ‘ফিলিস্তিনি জনগণের গণহত্যা’ বলে অভিহিত করেছেন। ইসরায়েলের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাৎক্ষণিকভাবে মন্তব্য করার অনুরোধের জবাব দেয়নি। মেক্সিকো এবং ব্রাজিলের মতো দক্ষিণ আমেরিকার অন্যান্য দেশও যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়েছে। গত শুক্রবার ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট লুইজ ইনাসিও লুলা দা সিলভা বলেছেন, ‘আমাদের কাছে এখন যা আছে তা হল ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রীর পাগলামি, যিনি গাজা উপত্যকাকে নিশ্চিহ্ন করতে চান।’