ঢাকা , শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিএনপি-জামায়াতের কর্মকাণ্ড সন্ত্রাসী সংগঠনের মতো: জয়

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৫:০৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ৬ নভেম্বর ২০২৩
  • 37

অনলাইন ডেস্ক : গত ২৮ অক্টোবর বিএনপি-জামায়াত সমাবেশকে ঘিরে যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে, তা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ‘এক্সে’ (সাবেক টুইটার) এ ভিডিও সংবলিত একটি পোস্ট দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

সজীব ওয়াজেদ জয় তার ভেরিফায়েড টুইটার অ্যাকাউন্টে বিএনপির অফিসিয়াল পেজকে তার স্ট্যাটাসে মেনশন করে তিনি লেখেন, এদের কর্মকাণ্ড ঠিক যেন একটা সন্ত্রাসী সংগঠনের মতো। পিকেটার @bdbnp78 ছাত্র সংগঠন তাদের ‘চলমান অবরোধ’ সফল করতে পুলিশের ভ্যানে ককটেল নিক্ষেপ করেছে।

২৮ অক্টোবরের কথা উল্লেখ করে তিনি লেখেন, কয়েকদিন আগে এই দলের হিংস্র ক্যাডাররা একজন পুলিশ অফিসারকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে অগ্নিসংযোগ করেছে। এ ঘটনায় ১০০ জনেরও বেশি পুলিশ অফিসার আহত হয়েছেন।

পুলিশ অফিসারের নৃশংস হত্যাকাণ্ডকে স্বাগত জানিয়ে একজন সিনিয়র বিএনপি নেতা প্রকাশ্যে দাবি করেছেন ‘তাদের সমাবেশ সফল হয়েছে’। এ ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে সমাজের সুশীল সমাজ।

তিনি আরও লিখেন, ২০১৩ থেকে ২০১৫ সালে বিএনপি-জামায়াত ক্যাডারদের ডাকা এই ধরনের ধর্মঘটে যানবাহনে আগুন, বোমা হামলার স্মৃতি, ঘুমের মধ্যে মানুষ হত্যা করেছিল তারা। সে সময় কমপক্ষে ৯০ জন পুলিশ সদস্যকে হত্যা করে তারা।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

জননিরাপত্তা বিভাগের নতুন সচিব হলেন জাহাঙ্গীর আলম

বিএনপি-জামায়াতের কর্মকাণ্ড সন্ত্রাসী সংগঠনের মতো: জয়

আপডেট সময় ০৫:০৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ৬ নভেম্বর ২০২৩

অনলাইন ডেস্ক : গত ২৮ অক্টোবর বিএনপি-জামায়াত সমাবেশকে ঘিরে যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে, তা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ‘এক্সে’ (সাবেক টুইটার) এ ভিডিও সংবলিত একটি পোস্ট দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

সজীব ওয়াজেদ জয় তার ভেরিফায়েড টুইটার অ্যাকাউন্টে বিএনপির অফিসিয়াল পেজকে তার স্ট্যাটাসে মেনশন করে তিনি লেখেন, এদের কর্মকাণ্ড ঠিক যেন একটা সন্ত্রাসী সংগঠনের মতো। পিকেটার @bdbnp78 ছাত্র সংগঠন তাদের ‘চলমান অবরোধ’ সফল করতে পুলিশের ভ্যানে ককটেল নিক্ষেপ করেছে।

২৮ অক্টোবরের কথা উল্লেখ করে তিনি লেখেন, কয়েকদিন আগে এই দলের হিংস্র ক্যাডাররা একজন পুলিশ অফিসারকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে অগ্নিসংযোগ করেছে। এ ঘটনায় ১০০ জনেরও বেশি পুলিশ অফিসার আহত হয়েছেন।

পুলিশ অফিসারের নৃশংস হত্যাকাণ্ডকে স্বাগত জানিয়ে একজন সিনিয়র বিএনপি নেতা প্রকাশ্যে দাবি করেছেন ‘তাদের সমাবেশ সফল হয়েছে’। এ ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে সমাজের সুশীল সমাজ।

তিনি আরও লিখেন, ২০১৩ থেকে ২০১৫ সালে বিএনপি-জামায়াত ক্যাডারদের ডাকা এই ধরনের ধর্মঘটে যানবাহনে আগুন, বোমা হামলার স্মৃতি, ঘুমের মধ্যে মানুষ হত্যা করেছিল তারা। সে সময় কমপক্ষে ৯০ জন পুলিশ সদস্যকে হত্যা করে তারা।