ঢাকা , সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নৌকায় সিল মারা ছাত্রলীগ নেতাকে শিবির কর্মী বললেন আওয়ামী লীগের বিজয়ী প্রার্থী

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৬:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর ২০২৩
  • 53

অনলাইন ডেস্ক :   লক্ষ্মীপুর-৩ (সদর) আসনের উপনির্বাচনে প্রকাশ্যে নৌকা প্রতীকে সিল মেরে ভাইরাল হয়েছেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আজাদ হোসেন। বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার মধ্যেই ওই উপনির্বাচনে বেসরকারিভাবে বিজয়ী আওয়ামী লীগের প্রার্থী গোলাম ফারুক পিংকু বললেন, আজাদ হোসেন ইসলামী ছাত্র শিবিরের কর্মী।

মঙ্গলবার (৭ নভেম্বর) সকালে নির্বাচন কমিশনে আলাপকালে গোলাম ফারুক পিংকু এই দাবি করেন। নির্বাচন কমিশনার আনিছুর রহমানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে নির্বাচন কমিশনে এসেছেন বলে জানা যায়। গোলাম ফারুক পিংকু ১ লাখ ২০ হাজার ৫৯৯ ভোট পেয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। রোববার (৫ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও কুমিল্লা আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ফরহাদ হোসেন বেসরকারিভাবে পিংকুকে জয়ী ঘোষণা করেছেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ৫৭ সেকেন্ডের ভিডিওতে দেখা গেছে, ভোটকক্ষে বসে এক ব্যক্তি ব্যালট পেপারে অনবরত নৌকা প্রতীকে সিল মারছেন। তার গলায় নৌকা প্রতীকের কার্ড ঝুলছে। এ সময় ৪৩টি ব্যালটে নৌকা প্রতীকে তাকে সিল মারতে দেখা যায়। তাকে নৌকায় সিল মারতে সহযোগিতা করছেন কক্ষে থাকা অন্য এক ব্যক্তি।প্রকাশ্যে সিল মারা ব্যক্তির নাম আজাদ। আজাদ প্রসঙ্গে পিংকু বলেন,আজাদ ছাত্রলীগের কেউ নয় সে শিবিরের লোক।এর আগে বিতর্কিত কাজ করেছেন যে কারণে তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। শিবির করার অভিযোগেই তাকে এর আগে বহিষ্কার করা হয়। তিনি আরও বলেন, আমাদের বিতর্কিত করার জন্য আজাদ টাকার বিনিময়ে এসব কাজ করেছে। জাতীয় নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতেই এসব কাজ করা হয়েছে।

ভোটকেন্দ্রে ওই নেতাকে একাধিক ব্যালট পেপারে নৌকা প্রতীকে সিল মারতে দেখা যায়। এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন (ইসি)। সোমবার (৬ নভেম্বর) লক্ষ্মীপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে এই নির্দেশনা দিয়েছে ইসি। কুমিল্লা অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ফরহাদ হোসেনের সই করা চিঠির মাধ্যমে এই নির্দেশনা দেওয়া হয়।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, রোববার (৫ নভেম্বর) লক্ষ্মীপুর-৩ শূন্য আসনের নির্বাচনে ভোটগ্রহণ হয়। ভোটে অনিয়মের বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচারিত ভিডিও চিত্রের সিডি সংযুক্ত করা হলো। সংশ্লিষ্ট ভোটকেন্দ্র চিহ্নিত করাসহ উল্লিখিত বিষয় তদন্তের জন্য ভোটকেন্দ্রে নিয়োজিত সব ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্যদের বক্তব্য গ্রহণ করে তদন্ত করে আগামী ৩ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করার অনুরোধ করা হলো।

নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য পিংকু জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সদর উপজেলার হাজিরপাড়া ইউনিয়নের বাসিন্দা।অন্যদিকে নৌকার প্রার্থীর সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন জাতীয় পার্টির জেলা কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ রাকিব হোসেন (লাঙ্গল)।

উপনির্বাচনে লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী ৩ হাজার ৮৪৬ ভোট পেয়েছেন। লাঙ্গলের প্রার্থী নৌকার প্রার্থী পিংকুর নামে লক্ষীপুর জেলা প্রশাসক ও জেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর অভিযোগ দায়ের করেছেন। লক্ষীপুর-৩ আসনে সংসদ উপ নির্বাচনে সকল নির্বাচনী কেন্দ্রের এজেন্টদেরকে বাহির করাসহ ভোট কারচুপি ও ভোট দানে বাধা প্রদান এবং মারধর করার অভিযোগ করেছেন। এর আগে গত ৫ নভেম্বর অনুষ্ঠিত লক্ষ্মীপুর-৩ (সদর) আসনের শূন্যপদের উপনির্বাচনে জালভোটসহ কেন্দ্রে এজেন্ট ঢুকতে না দেওয়ার অভিযোগ এনে লাঙ্গল ও গোলাপ ফুল প্রতীকের প্রার্থী ভোট বর্জন করেন।

ভোট বর্জনের বিষয়ে জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোহাম্মদ রাকিব হোসেন, আওয়ামী লীগের লোকজন বিভিন্ন কেন্দ্রে তাদের এজেন্টদের ঢুকতে দেয়নি। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা কৌশলে কেন্দ্র দখল করে জালভোট দিয়ে ব্যালট বাক্স ভর্তি করেছে। ১১৫টি কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি কম ছিল। জাল ভোটের কারণে অনেক কেন্দ্রে ৩০-৪০ শতাংশ ভোট দেখানো হয়েছে। এসব অভিযোগে তারা ভোট বর্জন করেন।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

বিমানবাহিনীর নতুন প্রধান হাসান মাহমুদ খাঁনকে  অভিনন্দন জানিয়েছেন খাঁন আকতারুজ্জামান

নৌকায় সিল মারা ছাত্রলীগ নেতাকে শিবির কর্মী বললেন আওয়ামী লীগের বিজয়ী প্রার্থী

আপডেট সময় ০৬:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর ২০২৩

অনলাইন ডেস্ক :   লক্ষ্মীপুর-৩ (সদর) আসনের উপনির্বাচনে প্রকাশ্যে নৌকা প্রতীকে সিল মেরে ভাইরাল হয়েছেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আজাদ হোসেন। বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার মধ্যেই ওই উপনির্বাচনে বেসরকারিভাবে বিজয়ী আওয়ামী লীগের প্রার্থী গোলাম ফারুক পিংকু বললেন, আজাদ হোসেন ইসলামী ছাত্র শিবিরের কর্মী।

মঙ্গলবার (৭ নভেম্বর) সকালে নির্বাচন কমিশনে আলাপকালে গোলাম ফারুক পিংকু এই দাবি করেন। নির্বাচন কমিশনার আনিছুর রহমানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে নির্বাচন কমিশনে এসেছেন বলে জানা যায়। গোলাম ফারুক পিংকু ১ লাখ ২০ হাজার ৫৯৯ ভোট পেয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। রোববার (৫ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও কুমিল্লা আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ফরহাদ হোসেন বেসরকারিভাবে পিংকুকে জয়ী ঘোষণা করেছেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ৫৭ সেকেন্ডের ভিডিওতে দেখা গেছে, ভোটকক্ষে বসে এক ব্যক্তি ব্যালট পেপারে অনবরত নৌকা প্রতীকে সিল মারছেন। তার গলায় নৌকা প্রতীকের কার্ড ঝুলছে। এ সময় ৪৩টি ব্যালটে নৌকা প্রতীকে তাকে সিল মারতে দেখা যায়। তাকে নৌকায় সিল মারতে সহযোগিতা করছেন কক্ষে থাকা অন্য এক ব্যক্তি।প্রকাশ্যে সিল মারা ব্যক্তির নাম আজাদ। আজাদ প্রসঙ্গে পিংকু বলেন,আজাদ ছাত্রলীগের কেউ নয় সে শিবিরের লোক।এর আগে বিতর্কিত কাজ করেছেন যে কারণে তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। শিবির করার অভিযোগেই তাকে এর আগে বহিষ্কার করা হয়। তিনি আরও বলেন, আমাদের বিতর্কিত করার জন্য আজাদ টাকার বিনিময়ে এসব কাজ করেছে। জাতীয় নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতেই এসব কাজ করা হয়েছে।

ভোটকেন্দ্রে ওই নেতাকে একাধিক ব্যালট পেপারে নৌকা প্রতীকে সিল মারতে দেখা যায়। এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন (ইসি)। সোমবার (৬ নভেম্বর) লক্ষ্মীপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে এই নির্দেশনা দিয়েছে ইসি। কুমিল্লা অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ফরহাদ হোসেনের সই করা চিঠির মাধ্যমে এই নির্দেশনা দেওয়া হয়।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, রোববার (৫ নভেম্বর) লক্ষ্মীপুর-৩ শূন্য আসনের নির্বাচনে ভোটগ্রহণ হয়। ভোটে অনিয়মের বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচারিত ভিডিও চিত্রের সিডি সংযুক্ত করা হলো। সংশ্লিষ্ট ভোটকেন্দ্র চিহ্নিত করাসহ উল্লিখিত বিষয় তদন্তের জন্য ভোটকেন্দ্রে নিয়োজিত সব ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্যদের বক্তব্য গ্রহণ করে তদন্ত করে আগামী ৩ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করার অনুরোধ করা হলো।

নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য পিংকু জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সদর উপজেলার হাজিরপাড়া ইউনিয়নের বাসিন্দা।অন্যদিকে নৌকার প্রার্থীর সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন জাতীয় পার্টির জেলা কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ রাকিব হোসেন (লাঙ্গল)।

উপনির্বাচনে লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী ৩ হাজার ৮৪৬ ভোট পেয়েছেন। লাঙ্গলের প্রার্থী নৌকার প্রার্থী পিংকুর নামে লক্ষীপুর জেলা প্রশাসক ও জেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর অভিযোগ দায়ের করেছেন। লক্ষীপুর-৩ আসনে সংসদ উপ নির্বাচনে সকল নির্বাচনী কেন্দ্রের এজেন্টদেরকে বাহির করাসহ ভোট কারচুপি ও ভোট দানে বাধা প্রদান এবং মারধর করার অভিযোগ করেছেন। এর আগে গত ৫ নভেম্বর অনুষ্ঠিত লক্ষ্মীপুর-৩ (সদর) আসনের শূন্যপদের উপনির্বাচনে জালভোটসহ কেন্দ্রে এজেন্ট ঢুকতে না দেওয়ার অভিযোগ এনে লাঙ্গল ও গোলাপ ফুল প্রতীকের প্রার্থী ভোট বর্জন করেন।

ভোট বর্জনের বিষয়ে জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোহাম্মদ রাকিব হোসেন, আওয়ামী লীগের লোকজন বিভিন্ন কেন্দ্রে তাদের এজেন্টদের ঢুকতে দেয়নি। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা কৌশলে কেন্দ্র দখল করে জালভোট দিয়ে ব্যালট বাক্স ভর্তি করেছে। ১১৫টি কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি কম ছিল। জাল ভোটের কারণে অনেক কেন্দ্রে ৩০-৪০ শতাংশ ভোট দেখানো হয়েছে। এসব অভিযোগে তারা ভোট বর্জন করেন।