ঢাকা , শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কক্সবাজার থেকে ট্রেনে ২৬ মিনিটে রামুতে পৌঁছালেন প্রধানমন্ত্রী

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৪:৪৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ নভেম্বর ২০২৩
  • 38

সিনিয়র রিপোর্টার : কক্সবাজার আইকনিক রেলস্টেশন উদ্বোধন শেষে ট্রেনে করে মাত্র ২৬ মিনিটে রামু পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর হেলিকপ্টার যোগে মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ি যাওয়ার কথা রয়েছে তার।

শনিবার (১১ নভেম্বর) দুপুরে কক্সবাজার-দোহাজারী রেললাইন ও কক্সবাজারের আইকনিক রেলস্টেশন প্রকল্পের উদ্বোধনের পর স্টেশনের টিকিট কাউন্টার থেকে টিকিট কাটেন প্রধানমন্ত্রী।

বেলা ১টা ২৮ মিনিটে কক্সবাজার স্টেশন থেকে ট্রেনটি রামুর উদ্দেশ্যে রওনা হয়। বেলা ১টা ৫৪ মিনিটে ট্রেনটি রামু স্টেশনে পৌঁছায়। ২৬ মিনিটের ট্রেন যাত্রায় অন্য বগিতে থাকা যাত্রীদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন প্রধানমন্ত্রী।

ট্রেনে বিটিভিসহ একাধিক গণমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আওয়ামী লীগ একমাত্র সরকার। যারা জনগণের ভোটে নির্বাচিত সরকার। আমি সবসময় চিন্তা করি কীভাবে বাংলাদেশের মানুষের জীবন মান উন্নত হবে।’

এদিন সকাল ১১টার দিকে কক্সবাজার বিমানবন্দরে পৌঁছান শেখ হাসিনা। ১১টা ২৫ মিনিটে আইকনিক রেল স্টেশন এলাকায় পৌঁছালে তাকে স্বাগত জানিয়ে রাখাইন নৃত্য পরিবেশন করে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী রাখাইন সম্প্রদায়ের তরুণী দল। নৃত্য শেষে প্রধানমন্ত্রী প্রটোকল ভেঙে রাখাইন তরুণীদের সঙ্গে ছবি তোলেন এবং তাদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।

উল্লেখ্য, দোহাজারী থেকে রামু হয়ে কক্সবাজার ও রামু থেকে মিয়ানমারের কাছে ঘুমধুম পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণের জন্য ২০১০ সালের ৬ জুলাই দোহাজারী-রামু-ঘুমধুম রেললাইন নির্মাণ প্রকল্পটি অনুমোদন পায়।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

সুইস ব্যাংক থেকে নজিরবিহীন গতিতে টাকা তুলছে বাংলাদেশিরা

কক্সবাজার থেকে ট্রেনে ২৬ মিনিটে রামুতে পৌঁছালেন প্রধানমন্ত্রী

আপডেট সময় ০৪:৪৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ নভেম্বর ২০২৩

সিনিয়র রিপোর্টার : কক্সবাজার আইকনিক রেলস্টেশন উদ্বোধন শেষে ট্রেনে করে মাত্র ২৬ মিনিটে রামু পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর হেলিকপ্টার যোগে মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ি যাওয়ার কথা রয়েছে তার।

শনিবার (১১ নভেম্বর) দুপুরে কক্সবাজার-দোহাজারী রেললাইন ও কক্সবাজারের আইকনিক রেলস্টেশন প্রকল্পের উদ্বোধনের পর স্টেশনের টিকিট কাউন্টার থেকে টিকিট কাটেন প্রধানমন্ত্রী।

বেলা ১টা ২৮ মিনিটে কক্সবাজার স্টেশন থেকে ট্রেনটি রামুর উদ্দেশ্যে রওনা হয়। বেলা ১টা ৫৪ মিনিটে ট্রেনটি রামু স্টেশনে পৌঁছায়। ২৬ মিনিটের ট্রেন যাত্রায় অন্য বগিতে থাকা যাত্রীদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন প্রধানমন্ত্রী।

ট্রেনে বিটিভিসহ একাধিক গণমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আওয়ামী লীগ একমাত্র সরকার। যারা জনগণের ভোটে নির্বাচিত সরকার। আমি সবসময় চিন্তা করি কীভাবে বাংলাদেশের মানুষের জীবন মান উন্নত হবে।’

এদিন সকাল ১১টার দিকে কক্সবাজার বিমানবন্দরে পৌঁছান শেখ হাসিনা। ১১টা ২৫ মিনিটে আইকনিক রেল স্টেশন এলাকায় পৌঁছালে তাকে স্বাগত জানিয়ে রাখাইন নৃত্য পরিবেশন করে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী রাখাইন সম্প্রদায়ের তরুণী দল। নৃত্য শেষে প্রধানমন্ত্রী প্রটোকল ভেঙে রাখাইন তরুণীদের সঙ্গে ছবি তোলেন এবং তাদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।

উল্লেখ্য, দোহাজারী থেকে রামু হয়ে কক্সবাজার ও রামু থেকে মিয়ানমারের কাছে ঘুমধুম পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণের জন্য ২০১০ সালের ৬ জুলাই দোহাজারী-রামু-ঘুমধুম রেললাইন নির্মাণ প্রকল্পটি অনুমোদন পায়।