ঢাকা , শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

২০ হাজার নেতাকর্মীকে জেলে রেখে আওয়ামী লীগ নির্বাচনী উৎসব করছে : ভিপি নুর 

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৭:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০২৩
  • 103
অনলাইন ডেস্ক :  গণঅধিকার পরিষদের সভাপতি ও ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর বলেছেন, আজ জনগণের ভোটের অধিকার নেই, নির্বাচনের পরিবেশ নেই। প্রধান বিরোধী দলের ২০ হাজার নেতা-কর্মীকে জেলে রেখে তারা (আওয়ামী লীগ) নির্বাচনের খেলার উৎসব করছে। রাজনীতির মাঠে আজ কোরবানির হাট বসিয়েছে। এই কোরবানি হাটে রাজনীতিবীদরা গরু-ছাগলের মতো বিক্রি হচ্ছে। 
বুধবার (২২ নভেম্বর) দুপুরে রাজধানীতে অবরোধ সমর্থনে গণঅধিকার পরিষদের বিক্ষোভ মিছিল শেষে বিজয়নগর পানির ট্যাংকের সামনে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে এমন মন্তব্য করেন তিনি। সাবেক ডাকসু ভিপি বলেন, আমরা শুরু থেকেই বলছি, দলীয় সরকারের অধীনে কোনো সাজানো ও পাতানো প্রহসনের নির্বাচনে আমরা যাবো না। তারা আমাদের উপর নির্যাতন করেছে। তারপরেও আমরা মাথানত করি নাই। 
বিজয় অর্জন না হওয়া পর্যন্ত এই লড়াই আমাদের চালিয়ে যেতে হবে জানিয়ে নুর বলেন, যারা এই গণতন্ত্রের জন্য লড়াইয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হবে, আগামীতে গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠিত হলে তাদের রাষ্ট্রীয়ভাবে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।
বিক্ষোভ মিছিলে আরও ছিলেন গণঅধিকার পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. রাশেদ খাঁন, উচ্চতর পরিষদের সদস্য শাকিল উজ্জামান, শহিদুল ইসলাম ফাহিম, ফাতেমা তাসনিম, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাসান আল মামুনসহ অনেকে।
ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

সুইস ব্যাংক থেকে নজিরবিহীন গতিতে টাকা তুলছে বাংলাদেশিরা

২০ হাজার নেতাকর্মীকে জেলে রেখে আওয়ামী লীগ নির্বাচনী উৎসব করছে : ভিপি নুর 

আপডেট সময় ০৭:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০২৩
অনলাইন ডেস্ক :  গণঅধিকার পরিষদের সভাপতি ও ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর বলেছেন, আজ জনগণের ভোটের অধিকার নেই, নির্বাচনের পরিবেশ নেই। প্রধান বিরোধী দলের ২০ হাজার নেতা-কর্মীকে জেলে রেখে তারা (আওয়ামী লীগ) নির্বাচনের খেলার উৎসব করছে। রাজনীতির মাঠে আজ কোরবানির হাট বসিয়েছে। এই কোরবানি হাটে রাজনীতিবীদরা গরু-ছাগলের মতো বিক্রি হচ্ছে। 
বুধবার (২২ নভেম্বর) দুপুরে রাজধানীতে অবরোধ সমর্থনে গণঅধিকার পরিষদের বিক্ষোভ মিছিল শেষে বিজয়নগর পানির ট্যাংকের সামনে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে এমন মন্তব্য করেন তিনি। সাবেক ডাকসু ভিপি বলেন, আমরা শুরু থেকেই বলছি, দলীয় সরকারের অধীনে কোনো সাজানো ও পাতানো প্রহসনের নির্বাচনে আমরা যাবো না। তারা আমাদের উপর নির্যাতন করেছে। তারপরেও আমরা মাথানত করি নাই। 
বিজয় অর্জন না হওয়া পর্যন্ত এই লড়াই আমাদের চালিয়ে যেতে হবে জানিয়ে নুর বলেন, যারা এই গণতন্ত্রের জন্য লড়াইয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হবে, আগামীতে গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠিত হলে তাদের রাষ্ট্রীয়ভাবে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।
বিক্ষোভ মিছিলে আরও ছিলেন গণঅধিকার পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. রাশেদ খাঁন, উচ্চতর পরিষদের সদস্য শাকিল উজ্জামান, শহিদুল ইসলাম ফাহিম, ফাতেমা তাসনিম, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাসান আল মামুনসহ অনেকে।