ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পিরোজপুরের-৩ আসনের নির্বাচনী হালচাল : মাদকমুক্ত মঠবাড়ীয়া গড়তে চান বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির প্রার্থী সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম স্বপন

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৭:৩৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ৯ ডিসেম্বর ২০২৩
  • 53
অনলাইন ডেস্ক : বিশিষ্ট সাংবাদিক, সমাজসেবক ও শিক্ষা অনুরাগী মঠবাড়ীয়ার কৃতি সন্তান আলহাজ্ব মোঃ শহিদুল ইসলাম স্বপন আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পিরোজপুর-৩ (মঠবাড়ীয়া) আসনে বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির প্রার্থী হয়ে ভোটযুদ্ধে নেমেছেন। তার দলীয় প্রতীক ঘড়ি মার্কা। তিনি নির্বাচিত হলে মাদকমুক্ত মঠবাড়ীয়া গড়বেন বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন। প্রার্থীতা বাছাইয়ে বৈধতা প্রাপ্তির পর থেকেই তিনি এলাকায় অনানুষ্ঠানিক গনসংযোগ শুরু করেছেন। সাধারণ ভোটারদের ব্যাপক সাড়া ও সমর্থনও পাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন তার সমর্থকরা।
পিরোজপুর জেলা রিটার্ণিং অফিস সুত্রে জানাগেছে, মঠবাড়িয়া উপজেলা ও ১টি পৌরসভা ও ১১ টি ইউনিয়ন নিয়ে পিরোজপুর-৩ আসন। এ আসনে মোট ভোটার ২ লাখ ২৩ হাজার ৪৪১ জন। পুরুষ ভোটার ১ লাখ ১২ হাজার ৯৬৭ জন। নারী ভোটার রয়েছেন ১ লাখ ১০ হাজার ৪৭৪ জন। মঠবাড়ীয়া পৌরসভা, আমড়া গাছিয়া, টিকিকাটা, তুষখালী, দাউদখালী, ধানীসাফা ,বড়মাছুয়া, বেতমোররাজপাড়া,মঠবাড়ীয়া, মিরুখালী,শাপলেজা এবং হলতা গুলিশাখালী ইউনিয়ন নিয়ে এই আসনটি গঠিত।
পিরোজপুর-৩ আসনের ১৪ জন প্রার্থীর মধ্যে ৯ জনের মনোনয়ন বৈধ হয়েছে। বাতিল হয়েছে ৫ জন প্রার্থীর। যারা বাদ পড়েছেন তারা হলেন: বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আব্দুল লতিফ সিরাজী, আয়কর রিটার্ন দাখিল না করায় তার মনোনয়ন বাতিল হয়েছে। ক্রেডিট কার্ডের ঋণখেলাপি থাকায় বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির প্রশান্ত কুমার হাওলাদারের মনোনয়ন বাতিল হয়েছে। টিন নম্বর না থাকা, আয়কর রিটার্ন জমা না দেওয়া, ভোটের ১ শতাংশ ভোটারের তথ্যের সত্যতা না পাওয়ায় স্বতন্ত্র মো. আবু তারেকের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে।মূল সনদ না দেওয়ায় বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের মো. শহিদুল ইসলামের মনোনয়ন বাতিল হয়েছে। টিন নম্বর না দেওয়া, আয়কর রিটার্ন দাখিল না করা, ১ শতাংশ ভোটারের তথ্যের সত্যতা না পাওয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী সুধীর রঞ্জন  বিশ্বাস এর মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। যাদের মনোনয়নপত্র বৈধ হয়েছে  তারা হলেন:আওয়ামী লীগের মনোনীত আশরাফুর রহমান।  ডাক্তার রুস্তম আলী ফরাজী।(স্বতন্ত্র) বর্তমান সংসদ সদস্য,  বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি মনোনীত  আলহাজ্ব শহিদুল ইসলাম স্বপন।  হোসাইন মোশারেফ সাকু, জাকের পার্টির চন্দ্র শেখর ওঝা,  রহমান,  মো. আমীর হোসেন, মো. শামিম শাহনেওয়াজ, মো. মাশরেকুল আলম রবি, মো. জাসেম মিয়া। নির্বাচণের বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে আলহাজ্ব  শহীদুল ইসলাম স্বপন বলেন, এই আসনের তুসখালি, বেতমোর, বড়মাছুয়া  ইউনিয়ন থেকে স্বাধীনের আগে এবং পরে কোন সংসার সদস্য প্রার্থী হননি। আমি পদপ্রার্থী হওয়ায় এলাকার জনগণ খুব খুশি।
এ প্রসঙ্গে নির্বাচনী এলাকার ভোটারদের সাথে কথা বললে তারা জানান, আমরা এবার আমাদের ঘরের ছেলেকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করব। ঘরের ছেলে থাকতে অন্যকে ভোট দিব কেন?  দল মত নির্বিশেষে একাত্মতা ঘোষণা করে ঘড়ি মার্কায় ভোট দিয়ে আলহাজ্ব শহিদুল ইসলাম স্বপনকে জয়যুক্ত করবেন বলে মতপ্রকাশ করেন। নির্বাচিত হলে এলাকার উন্নয়ন ও ভোটারদের কল্যাণে কি কি পদক্ষেপ নেবেন? এমন প্রশ্নে আলহাজ্ব  শহিদুল ইসলাম স্বপন। বলেন, মঠবাড়ীয়া কে এম লতিফ ইনস্টিটিউশনকে সরকারীকরণ, মঠবাড়ীয়ায় বাইপাস সড়ক নির্মাণ,আধুনিক বাস টার্মিনাল নির্মাণ, বলেশ্বর নদীতে সেতু নির্মাণ, খেলাধুলার জন্য মিনি স্টেডিয়াম,সাংবাদিকদের কল্যাণে আবাসনের ব্যবস্থা করা।  আধুনিক শিশু পার্ক স্থাপন ও মঠবাড়ীয়া উপজেলাকে জেলা হিসেবে ঘোষণা  করার পদক্ষেপ নেব। এ ছাড়া মঠবাড়ীয়াকে মাদকমুক্ত করে জনগনের জীবন মান উন্নয়ন ও বেকার সমস্যা সমাধানে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কর্মসুচি নেব। দাউদখালির রহিম মিয়া এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমরা স্বাধীনতার পর অনেক নেতাকেই দেখেছি তাদের কাছে আমরা যেতে পারি না ঠিক মতন কথা বলতে পারি নাই।  স্বপন ভাইয়ের কাছে সব সময় যাওয়া যায় মনের কথা বলা যায় তিনি নির্বাচিত হলে আমরা আমাদের সঠিক প্রাপ্য বুঝে নিতে পারব।
বেতমরের মাস্টার জহির এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন স্বপন ভাই একজন ভালো মানুষ পরোপকারী তিনি সময় পেলে এলাকায় ছুটে আসেন সাধারণ মানুষের সাথে মিশে গেছেন তার সাধ্য মতন যখন যা পারেন এলাকার উন্নয়নের কাজ করেন আমি তার সার্বিক মঙ্গল কামনা করি। বড়মাছুয়ার জেলে শাজাহান এর কাছে জানতে চাইলে বলেন আমরা খেটে খাওয়া মানুষ আমরা কেমন আছি তা এমপি সাহেবরা দেখেনা যেই এমপি হোক আমাদের কর্ম করেই খেতে হবে স্বপন ভাই একজন ভালো মানুষ তিনি গ্রামে এলে আমাদের খোঁজ খবর নেন তিনি এমপি হলে আমাদের প্রাপ্য আমাদেরকে বুঝিয়ে দিবেন তিনি আমার আমাদের ঠকাবেন না  মুই আল্লাহর কাছে দোয়া করি স্বপন  যেন এমপি হয় । আলহাজ্ব শহিদুল ইসলাম স্বপন এই প্রতিবেদক কে বলেন সর্বশেষ তিনি বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির পতাকাতলে সামিল হয়ে স্মার্ট ও গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ গঠনে এগিয়ে আসার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।
ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

সিলেটে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে

পিরোজপুরের-৩ আসনের নির্বাচনী হালচাল : মাদকমুক্ত মঠবাড়ীয়া গড়তে চান বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির প্রার্থী সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম স্বপন

আপডেট সময় ০৭:৩৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ৯ ডিসেম্বর ২০২৩
অনলাইন ডেস্ক : বিশিষ্ট সাংবাদিক, সমাজসেবক ও শিক্ষা অনুরাগী মঠবাড়ীয়ার কৃতি সন্তান আলহাজ্ব মোঃ শহিদুল ইসলাম স্বপন আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পিরোজপুর-৩ (মঠবাড়ীয়া) আসনে বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির প্রার্থী হয়ে ভোটযুদ্ধে নেমেছেন। তার দলীয় প্রতীক ঘড়ি মার্কা। তিনি নির্বাচিত হলে মাদকমুক্ত মঠবাড়ীয়া গড়বেন বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন। প্রার্থীতা বাছাইয়ে বৈধতা প্রাপ্তির পর থেকেই তিনি এলাকায় অনানুষ্ঠানিক গনসংযোগ শুরু করেছেন। সাধারণ ভোটারদের ব্যাপক সাড়া ও সমর্থনও পাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন তার সমর্থকরা।
পিরোজপুর জেলা রিটার্ণিং অফিস সুত্রে জানাগেছে, মঠবাড়িয়া উপজেলা ও ১টি পৌরসভা ও ১১ টি ইউনিয়ন নিয়ে পিরোজপুর-৩ আসন। এ আসনে মোট ভোটার ২ লাখ ২৩ হাজার ৪৪১ জন। পুরুষ ভোটার ১ লাখ ১২ হাজার ৯৬৭ জন। নারী ভোটার রয়েছেন ১ লাখ ১০ হাজার ৪৭৪ জন। মঠবাড়ীয়া পৌরসভা, আমড়া গাছিয়া, টিকিকাটা, তুষখালী, দাউদখালী, ধানীসাফা ,বড়মাছুয়া, বেতমোররাজপাড়া,মঠবাড়ীয়া, মিরুখালী,শাপলেজা এবং হলতা গুলিশাখালী ইউনিয়ন নিয়ে এই আসনটি গঠিত।
পিরোজপুর-৩ আসনের ১৪ জন প্রার্থীর মধ্যে ৯ জনের মনোনয়ন বৈধ হয়েছে। বাতিল হয়েছে ৫ জন প্রার্থীর। যারা বাদ পড়েছেন তারা হলেন: বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আব্দুল লতিফ সিরাজী, আয়কর রিটার্ন দাখিল না করায় তার মনোনয়ন বাতিল হয়েছে। ক্রেডিট কার্ডের ঋণখেলাপি থাকায় বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির প্রশান্ত কুমার হাওলাদারের মনোনয়ন বাতিল হয়েছে। টিন নম্বর না থাকা, আয়কর রিটার্ন জমা না দেওয়া, ভোটের ১ শতাংশ ভোটারের তথ্যের সত্যতা না পাওয়ায় স্বতন্ত্র মো. আবু তারেকের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে।মূল সনদ না দেওয়ায় বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের মো. শহিদুল ইসলামের মনোনয়ন বাতিল হয়েছে। টিন নম্বর না দেওয়া, আয়কর রিটার্ন দাখিল না করা, ১ শতাংশ ভোটারের তথ্যের সত্যতা না পাওয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী সুধীর রঞ্জন  বিশ্বাস এর মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। যাদের মনোনয়নপত্র বৈধ হয়েছে  তারা হলেন:আওয়ামী লীগের মনোনীত আশরাফুর রহমান।  ডাক্তার রুস্তম আলী ফরাজী।(স্বতন্ত্র) বর্তমান সংসদ সদস্য,  বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি মনোনীত  আলহাজ্ব শহিদুল ইসলাম স্বপন।  হোসাইন মোশারেফ সাকু, জাকের পার্টির চন্দ্র শেখর ওঝা,  রহমান,  মো. আমীর হোসেন, মো. শামিম শাহনেওয়াজ, মো. মাশরেকুল আলম রবি, মো. জাসেম মিয়া। নির্বাচণের বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে আলহাজ্ব  শহীদুল ইসলাম স্বপন বলেন, এই আসনের তুসখালি, বেতমোর, বড়মাছুয়া  ইউনিয়ন থেকে স্বাধীনের আগে এবং পরে কোন সংসার সদস্য প্রার্থী হননি। আমি পদপ্রার্থী হওয়ায় এলাকার জনগণ খুব খুশি।
এ প্রসঙ্গে নির্বাচনী এলাকার ভোটারদের সাথে কথা বললে তারা জানান, আমরা এবার আমাদের ঘরের ছেলেকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করব। ঘরের ছেলে থাকতে অন্যকে ভোট দিব কেন?  দল মত নির্বিশেষে একাত্মতা ঘোষণা করে ঘড়ি মার্কায় ভোট দিয়ে আলহাজ্ব শহিদুল ইসলাম স্বপনকে জয়যুক্ত করবেন বলে মতপ্রকাশ করেন। নির্বাচিত হলে এলাকার উন্নয়ন ও ভোটারদের কল্যাণে কি কি পদক্ষেপ নেবেন? এমন প্রশ্নে আলহাজ্ব  শহিদুল ইসলাম স্বপন। বলেন, মঠবাড়ীয়া কে এম লতিফ ইনস্টিটিউশনকে সরকারীকরণ, মঠবাড়ীয়ায় বাইপাস সড়ক নির্মাণ,আধুনিক বাস টার্মিনাল নির্মাণ, বলেশ্বর নদীতে সেতু নির্মাণ, খেলাধুলার জন্য মিনি স্টেডিয়াম,সাংবাদিকদের কল্যাণে আবাসনের ব্যবস্থা করা।  আধুনিক শিশু পার্ক স্থাপন ও মঠবাড়ীয়া উপজেলাকে জেলা হিসেবে ঘোষণা  করার পদক্ষেপ নেব। এ ছাড়া মঠবাড়ীয়াকে মাদকমুক্ত করে জনগনের জীবন মান উন্নয়ন ও বেকার সমস্যা সমাধানে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কর্মসুচি নেব। দাউদখালির রহিম মিয়া এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমরা স্বাধীনতার পর অনেক নেতাকেই দেখেছি তাদের কাছে আমরা যেতে পারি না ঠিক মতন কথা বলতে পারি নাই।  স্বপন ভাইয়ের কাছে সব সময় যাওয়া যায় মনের কথা বলা যায় তিনি নির্বাচিত হলে আমরা আমাদের সঠিক প্রাপ্য বুঝে নিতে পারব।
বেতমরের মাস্টার জহির এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন স্বপন ভাই একজন ভালো মানুষ পরোপকারী তিনি সময় পেলে এলাকায় ছুটে আসেন সাধারণ মানুষের সাথে মিশে গেছেন তার সাধ্য মতন যখন যা পারেন এলাকার উন্নয়নের কাজ করেন আমি তার সার্বিক মঙ্গল কামনা করি। বড়মাছুয়ার জেলে শাজাহান এর কাছে জানতে চাইলে বলেন আমরা খেটে খাওয়া মানুষ আমরা কেমন আছি তা এমপি সাহেবরা দেখেনা যেই এমপি হোক আমাদের কর্ম করেই খেতে হবে স্বপন ভাই একজন ভালো মানুষ তিনি গ্রামে এলে আমাদের খোঁজ খবর নেন তিনি এমপি হলে আমাদের প্রাপ্য আমাদেরকে বুঝিয়ে দিবেন তিনি আমার আমাদের ঠকাবেন না  মুই আল্লাহর কাছে দোয়া করি স্বপন  যেন এমপি হয় । আলহাজ্ব শহিদুল ইসলাম স্বপন এই প্রতিবেদক কে বলেন সর্বশেষ তিনি বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির পতাকাতলে সামিল হয়ে স্মার্ট ও গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ গঠনে এগিয়ে আসার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।