ঢাকা , বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইসি রাশেদা সুলতানা বলেন : ভোটাররা অভিযোগ করলেই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৪:৪২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ ডিসেম্বর ২০২৩
  • 40
অনলাইন ডেস্ক : ভোটাররা অভিযোগ করলে আইনশৃংখলা বাহিনী ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার (ইসি) রাশেদা সুলতানা। তিনি বলেন, কোনো ভোটার যদি বলেন তিনি আতঙ্কে রয়েছেন, তাকে বাধা সৃষ্টি করা হয়েছে, তাহলে কোনো প্রমাণ বা সাক্ষী লাগবে না, আইনশৃংখলা বাহিনী ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। বৃহস্পতিবার (২১ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নাটোর জেলা প্রশাসনের হলরুমে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ও আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।
রাশেদা সুলতানা বলেন, কোনো ভোটারকে যদি কেউ তার বাড়িতে, বাহিরে বা ভোটকেন্দ্রে বাধা বা হুকমি, ভয়-ভীতি দেখিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে, তবে সে ব্যক্তি অপরাধী হিসেবে চিহ্নিত হবে। তার শাস্তি হবে। আমাদের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাঠে রয়েছেন। ভোটের মাঠে প্রার্থীদের আচরণবিধি লঙ্ঘন হলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেবেন। সামনে কোনো প্রকার অপরাধ সংঘটিত হলে তারা তদন্ত করে রিপোর্ট কমিশনে পাঠাবেন। এরপর তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেবেন।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে নির্বাচন কমিশনার বলেন, আমরা সকলকে নিয়ে সমন্বয়ের মাধ্যমে অবাধ, সুষ্ঠু, সুন্দর এবং নিরোপক্ষ নির্বাচন করতে চাই। প্রার্থীরা যাতে নিদ্বিধায় ভোট কেন্দ্রে আসতে পারেন, সেজন্য নির্বাচন কমিশন কাজ করছে। আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা দিন-রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন, যাতে পরিবেশটা বিঘ্ন না হয়, পরিবেশটা সুন্দর হয়। ভোটাররা যাতে কেন্দ্রে এসে তাদের পচ্ছন্দের প্রার্থীদের নিদ্বিধায় ভোট দিতে পারেন। আমি ভোটারদের বলবো, আপনারা নির্ভয়ে ভোট কেন্দ্রে আসবেন। আপনার পচ্ছন্দের প্রার্থীদের ভোট প্রদান করবেন।
ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন : অপরাধী হলে আজিজ-বেনজীরের বিচার হবে

ইসি রাশেদা সুলতানা বলেন : ভোটাররা অভিযোগ করলেই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে

আপডেট সময় ০৪:৪২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ ডিসেম্বর ২০২৩
অনলাইন ডেস্ক : ভোটাররা অভিযোগ করলে আইনশৃংখলা বাহিনী ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার (ইসি) রাশেদা সুলতানা। তিনি বলেন, কোনো ভোটার যদি বলেন তিনি আতঙ্কে রয়েছেন, তাকে বাধা সৃষ্টি করা হয়েছে, তাহলে কোনো প্রমাণ বা সাক্ষী লাগবে না, আইনশৃংখলা বাহিনী ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। বৃহস্পতিবার (২১ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নাটোর জেলা প্রশাসনের হলরুমে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ও আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।
রাশেদা সুলতানা বলেন, কোনো ভোটারকে যদি কেউ তার বাড়িতে, বাহিরে বা ভোটকেন্দ্রে বাধা বা হুকমি, ভয়-ভীতি দেখিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে, তবে সে ব্যক্তি অপরাধী হিসেবে চিহ্নিত হবে। তার শাস্তি হবে। আমাদের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাঠে রয়েছেন। ভোটের মাঠে প্রার্থীদের আচরণবিধি লঙ্ঘন হলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেবেন। সামনে কোনো প্রকার অপরাধ সংঘটিত হলে তারা তদন্ত করে রিপোর্ট কমিশনে পাঠাবেন। এরপর তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেবেন।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে নির্বাচন কমিশনার বলেন, আমরা সকলকে নিয়ে সমন্বয়ের মাধ্যমে অবাধ, সুষ্ঠু, সুন্দর এবং নিরোপক্ষ নির্বাচন করতে চাই। প্রার্থীরা যাতে নিদ্বিধায় ভোট কেন্দ্রে আসতে পারেন, সেজন্য নির্বাচন কমিশন কাজ করছে। আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা দিন-রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন, যাতে পরিবেশটা বিঘ্ন না হয়, পরিবেশটা সুন্দর হয়। ভোটাররা যাতে কেন্দ্রে এসে তাদের পচ্ছন্দের প্রার্থীদের নিদ্বিধায় ভোট দিতে পারেন। আমি ভোটারদের বলবো, আপনারা নির্ভয়ে ভোট কেন্দ্রে আসবেন। আপনার পচ্ছন্দের প্রার্থীদের ভোট প্রদান করবেন।