ঢাকা , রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রতিটি ভোট হবে বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ : নসরুল হামিদ

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৩:৪৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০২৩
  • 26

সিনিয়র রিপোর্টার : ঢাকা-৩ আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী নসরুল হামিদ বলেছেন, আগামী ৭ জানুয়ারির প্রতিটি ভোট হবে বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ। আমার প্রার্থী জিতবে, এটা ভেবে ঘরে বসে থাকলে হবে না। কে জিতবে আর কে জিতবে না, এটা আল্লাহ জানেন। ভোটটা দেওয়া মানে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ। এটা মাথায় রাখতে হবে।

রোববার (২৪ ডিসেম্বর) তেঘরিয়া ইউনিয়নে ৮নং ওয়ার্ডের কদমপুর এলাকায় উঠান বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি সবাইকে ২০২৪ সালের ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনের ভোটের দিন সকাল ৮টা থেকে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান।

বিএনপি ও তারেক জিয়ার সমালোচনা করে নসরুল হামিদ বলেন, এই কয়েকদিন আগে তেজগাঁওয়ে ট্রেনে আগুন দিয়েছে। বাচ্চাসহ চারজন মারা গেছে। এদের বুক কাপে না। লন্ডনে বসে নির্দেশ দেয় বুক কাপে? মানুষ হত্যা করে শান্তি চায় এটা হতে পারে! ২০১৪ সালেও আমরা দেখেছি। শান্তির কথা বলে সারা বাংলাদেশে নৈরাজ্য করেছে। আপনাদের এ কথাগুলো স্মরণ রাখতে হবে। বিএনপি-জামায়াত এই দেশটাকে লুটেপুটে খেয়েছে। নিজেরা আসতে পারবে না দেখে এখন বিদেশিদের কাছে হাত পেতেছে ৷ সকল ষড়যন্ত্র শেষ হয়ে গেছে।

নির্বাচনে অংশ না নেওয়ায় বিএনপি-জামায়াতের রাজনৈতিক ভবিষ্যত প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, এবার নির্বাচনে না এসে যে ভুল করলো বিএনপি জামায়াত জোট, ওরা সারাজীবনের জন্য নিশ্চিহ্ন হয়ে গেল।

সমাবেশে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- কেরানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহীন আহমেদ, তেঘরিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহর চান মোল্লাসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

বিগত দিনে সব থেকে বেশি কাজ হয়েছে তেঘরিয়া ইউনিয়নে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আপনাদের আরও বেশি যেতে হবে। ৬০০ বিঘার ওপর এখানে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ চলছে। এটা শেষ হলে দেখবেন এই এলাকার চেহারা আরও পরিবর্তন হয়ে গেছে। আপনাদের পাশের কান্ডা ইউনিয়নে রেলস্টেশন হয়েছে। এখান থেকে চাইলে আপনি ট্রেনে চড়ে যশোর-খুলনা-বেনাপোল হয়ে কলকাতা চলে যেতে পারবেন। আবার কমলাপুর হয়ে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার যেতে পারবেন। এটা সম্ভব হয়েছে কেন? এটা সম্ভব হয়েছে শেখ হাসিনার কারণে। নৌকায় ভোট দেওয়ার কারণে। 

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

র‌্যাবকে যেসব নির্দেশনা দিলেন নতুন ডিজি

প্রতিটি ভোট হবে বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ : নসরুল হামিদ

আপডেট সময় ০৩:৪৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০২৩

সিনিয়র রিপোর্টার : ঢাকা-৩ আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী নসরুল হামিদ বলেছেন, আগামী ৭ জানুয়ারির প্রতিটি ভোট হবে বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ। আমার প্রার্থী জিতবে, এটা ভেবে ঘরে বসে থাকলে হবে না। কে জিতবে আর কে জিতবে না, এটা আল্লাহ জানেন। ভোটটা দেওয়া মানে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ। এটা মাথায় রাখতে হবে।

রোববার (২৪ ডিসেম্বর) তেঘরিয়া ইউনিয়নে ৮নং ওয়ার্ডের কদমপুর এলাকায় উঠান বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি সবাইকে ২০২৪ সালের ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনের ভোটের দিন সকাল ৮টা থেকে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান।

বিএনপি ও তারেক জিয়ার সমালোচনা করে নসরুল হামিদ বলেন, এই কয়েকদিন আগে তেজগাঁওয়ে ট্রেনে আগুন দিয়েছে। বাচ্চাসহ চারজন মারা গেছে। এদের বুক কাপে না। লন্ডনে বসে নির্দেশ দেয় বুক কাপে? মানুষ হত্যা করে শান্তি চায় এটা হতে পারে! ২০১৪ সালেও আমরা দেখেছি। শান্তির কথা বলে সারা বাংলাদেশে নৈরাজ্য করেছে। আপনাদের এ কথাগুলো স্মরণ রাখতে হবে। বিএনপি-জামায়াত এই দেশটাকে লুটেপুটে খেয়েছে। নিজেরা আসতে পারবে না দেখে এখন বিদেশিদের কাছে হাত পেতেছে ৷ সকল ষড়যন্ত্র শেষ হয়ে গেছে।

নির্বাচনে অংশ না নেওয়ায় বিএনপি-জামায়াতের রাজনৈতিক ভবিষ্যত প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, এবার নির্বাচনে না এসে যে ভুল করলো বিএনপি জামায়াত জোট, ওরা সারাজীবনের জন্য নিশ্চিহ্ন হয়ে গেল।

সমাবেশে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- কেরানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহীন আহমেদ, তেঘরিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহর চান মোল্লাসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

বিগত দিনে সব থেকে বেশি কাজ হয়েছে তেঘরিয়া ইউনিয়নে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আপনাদের আরও বেশি যেতে হবে। ৬০০ বিঘার ওপর এখানে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ চলছে। এটা শেষ হলে দেখবেন এই এলাকার চেহারা আরও পরিবর্তন হয়ে গেছে। আপনাদের পাশের কান্ডা ইউনিয়নে রেলস্টেশন হয়েছে। এখান থেকে চাইলে আপনি ট্রেনে চড়ে যশোর-খুলনা-বেনাপোল হয়ে কলকাতা চলে যেতে পারবেন। আবার কমলাপুর হয়ে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার যেতে পারবেন। এটা সম্ভব হয়েছে কেন? এটা সম্ভব হয়েছে শেখ হাসিনার কারণে। নৌকায় ভোট দেওয়ার কারণে।