ঢাকা , সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আগামী ৭ জানুয়ারির নির্বাচন তামাশার নয়, বিএনপির বক্তব্যই তামাশার : আইনমন্ত্রী

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৪:২৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ জানুয়ারী ২০২৪
  • 30

অনলাইন ডেস্ক : দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে বিএনপির বক্তব্যকে তামাশা উল্লেখ করে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ‘আগামী ৭ জানুয়ারির নির্বাচন তামাশার নির্বাচন নয়। এই নির্বাচনকে যারা তামাশা বলছেন, তাদের বক্তব্যই তামাশার। জনগণ এই নির্বাচনকে মেনে নিয়েছে। নির্বাচনের ক্ষেত্রে আমি বলবো তারা (বিএনপি নেতারা) কথা বলে যেতে পারেন। তবে দেশের জনগণ সঠিকভাবে তাদের অধিকার ব্যক্ত করবে।’

বুধবার (৩ জানুয়ারি) সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া রেলওয়ে স্টেশনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের আদালত বর্জন কর্মসূচিকে নিছক ‘পলিটিক্যাল স্টান্ট’ বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।  

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপির আইনজীবীরা যে আদালত বর্জন করেছেন সেটি নিছক পলিটিক্যাল স্টান্ট বলে আমি মনে করি। এর কোনো মর্মার্থ নেই। কারণ আদালত তার কাজ করে যাচ্ছে, আদালত বিচারকার্যে মনোনিবেশ করছে। তাই তাদেরকে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের মধ্যে টেনে আনা বিএনপির ভুল এবং অন্যায়।’

এ সময় মন্ত্রীকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল, ধরখার ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সাফিকুল ইসলাম শাফী, আখাউড়া উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম-আহ্বায়ক আব্দুল মমিন বাবুল, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহাব উদ্দিন বেগ শাপলু, সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন নয়নসহ আরও অনেকে।

এর আগে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বিরোধিতা করে বিএনপির অসহযোগ আন্দোলনের সাথে সংহতি প্রকাশ করে সপ্তাহব্যাপী আদালত বর্জনের ডাক দেন বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের সংগঠন জাতীয়তাবাদী আইনজবীবী ফোরাম।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

র‌্যাবকে যেসব নির্দেশনা দিলেন নতুন ডিজি

আগামী ৭ জানুয়ারির নির্বাচন তামাশার নয়, বিএনপির বক্তব্যই তামাশার : আইনমন্ত্রী

আপডেট সময় ০৪:২৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ জানুয়ারী ২০২৪

অনলাইন ডেস্ক : দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে বিএনপির বক্তব্যকে তামাশা উল্লেখ করে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ‘আগামী ৭ জানুয়ারির নির্বাচন তামাশার নির্বাচন নয়। এই নির্বাচনকে যারা তামাশা বলছেন, তাদের বক্তব্যই তামাশার। জনগণ এই নির্বাচনকে মেনে নিয়েছে। নির্বাচনের ক্ষেত্রে আমি বলবো তারা (বিএনপি নেতারা) কথা বলে যেতে পারেন। তবে দেশের জনগণ সঠিকভাবে তাদের অধিকার ব্যক্ত করবে।’

বুধবার (৩ জানুয়ারি) সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া রেলওয়ে স্টেশনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের আদালত বর্জন কর্মসূচিকে নিছক ‘পলিটিক্যাল স্টান্ট’ বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।  

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপির আইনজীবীরা যে আদালত বর্জন করেছেন সেটি নিছক পলিটিক্যাল স্টান্ট বলে আমি মনে করি। এর কোনো মর্মার্থ নেই। কারণ আদালত তার কাজ করে যাচ্ছে, আদালত বিচারকার্যে মনোনিবেশ করছে। তাই তাদেরকে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের মধ্যে টেনে আনা বিএনপির ভুল এবং অন্যায়।’

এ সময় মন্ত্রীকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল, ধরখার ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সাফিকুল ইসলাম শাফী, আখাউড়া উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম-আহ্বায়ক আব্দুল মমিন বাবুল, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহাব উদ্দিন বেগ শাপলু, সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন নয়নসহ আরও অনেকে।

এর আগে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বিরোধিতা করে বিএনপির অসহযোগ আন্দোলনের সাথে সংহতি প্রকাশ করে সপ্তাহব্যাপী আদালত বর্জনের ডাক দেন বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের সংগঠন জাতীয়তাবাদী আইনজবীবী ফোরাম।