ঢাকা , সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভোট নিয়ে সেলিব্রিটিদের মন্তব্য

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৪:০৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ জানুয়ারী ২০২৪
  • 41

অনলাইন ডেস্ক : সারা দেশে চলছে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। প্রধান বিরোধী দল বিএনপি না আসায় নির্বাচনে উত্তেজনা নেই। আমেজহীন নির্বাচনে সেলিব্রিটিরা কে কোন কেন্দ্রে ভোট দিচ্ছেন। দেখে নেওয়া যাক—

 ‘মনপুরা’খ্যাত গুণী নির্মাতা গিয়াস উদ্দিন সেলিম ধানমন্ডির বাসিন্দা হিসেবে ঢাকা-১০ আসনের ভোটার। ভোট নিয়ে তার ছোট বার্তা— ‘অবশ্যই ভোট দিতে যাব। আগেও ভোট দিয়েছি, অভিজ্ঞতা বেশ ভালো। কারণ প্রতিনিধি নির্বাচন করতে ভালোই লাগে।’

‘আয়নাবাজি’ নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরী উত্তরার বাসিন্দা। সে হিসেবে ঢাকা-১৮ আসনের ভোটার তিনি। তার ছোট্ট মন্তব্য— ‘ভোট দিতে যাব। আগেও প্রতিবার ভালোভাবে ভোট দিয়েছি।’

একই আসনের ভোটার গায়িকা আঁখি আলমগীর। তিনি বললেন, ‘প্রতিবারই আমি ভোট দিই। এবারও দেব। রিকশায় চেপে নির্দিষ্ট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেব। বিষয়টি আমার কাছে ঈদের আনন্দের মতো।’

‘মহানগর’খ্যাত নির্মাতা আশফাক নিপুণ চট্টগ্রাম-৯ আসনের ভোটার। অতীতে ভোট দিলেও এবার তিনি ব্যালট পেপার হাতে তুলছেন না। অতীতে ভোট দেওয়া প্রসঙ্গে তার মন্তব্য— ‘অভিজ্ঞতা ভালো। দেওয়ার পরের অভিজ্ঞতা মৃদুমন্দ।’

ঢাকা-১৭ আসনের ভোটার নির্মাতা রায়হান রাফী। ঢাকায় না থাকার কারণে তিনি ভোট দিতে পারছেন না। তিনি জানালেন— ‘আমি গুলশান-১ এলাকার ভোটার। ঢাকা-১৭ সম্ভবত।’

অভিনেত্রী তমা মির্জা ঢাকা-১১ আসনের ভোটার। তিনি বলেছেন, ‘আমি বাড্ডার নাগরিক। এটা ঢাকা-১১ আসনের মধ্যে পড়েছে। আগে একবার ভোট দিতে গিয়েছিলাম। কিন্তু কোনো কারণে দেওয়া হয়নি। এবার দেওয়ার ইচ্ছে আছে।’

অভিনেতা সাজু খাদেম জানালেন, তিনি ঢাকা-১৩ আসনের ভোটার। অতীত অভিজ্ঞতা টেনে তিনি বলেন, ‘এবারও অবশ্যই ভোট দেব। আগের অভিজ্ঞতা খুব ভালো। ভোটকেন্দ্রে গিয়ে আমার ভোট আমিই দিয়েছি।’

ঢাকা-১০ আসনের ভোটার অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা। ভোট দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘অবশ্যই ভোট দেব। আমি মনে করি প্রতিটা ভোটারেরই ভোট দেওয়া উচিত। ৫ বছর আগে প্রথম ভোটার হই। তখনো ভোট দিতে গিয়েছি আমি। এবারও যাব।’

একই আসনের ভোটার চিত্রনায়িকা অধরা খান। তিনি বলেন, ‘আমি নিউমার্কেট এলাকায় থাকি। ঢাকা-১০ আসনের ভোটার। আগে ভোট দেওয়া হয়নি। এবার প্রথম ভোট দেব।’

চিত্রনায়ক ইমন ঢাকা-১৮ আসনের ভোটার। থাকেন বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায়। তিনি বলেছেন, ‘অবশ্যই ভোট দিতে যাব। আগেও দিয়েছি। ভোট দিতে আমার ভালো লাগে। তা ছাড়া এটা তো আমার অধিকার।’

অভিনেত্রী মৌসুমী হামিদ সাতক্ষীরা-১ আসনের ভোটার। ভোট দেওয়ার জন্য তিনি কাজ থেকে ছুটি নিয়ে গ্রামে গেছেন। 

ঢাকা-৮ আসনের ভোটার অভিনেত্রী-নির্মাতা হৃদি হক। ভোট দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ভোট হচ্ছে নাগরিকের অধিকার। যোগ্য নেতাকে নির্বাচিত করে রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়ার অধিকার। তাই ভোটের অধিকার অবশ্য পালনীয়। আমি নিয়মিত ভোটকেন্দ্রে যাওয়া মানুষ। এবারও যাচ্ছি।’

জনপ্রিয় সঞ্চালক শ্রাবণ্য তৌহিদা ঢাকা-১১ আসনের ভোটার। ভোট নিয়ে তিনি বলেন, ‘যাব মানে, কেন্দ্রে যাওয়ার অপেক্ষায় আছি। সেদিন ভোট ছাড়া আর কোনো কাজ রাখিনি।’

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

র‌্যাবকে যেসব নির্দেশনা দিলেন নতুন ডিজি

ভোট নিয়ে সেলিব্রিটিদের মন্তব্য

আপডেট সময় ০৪:০৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ জানুয়ারী ২০২৪

অনলাইন ডেস্ক : সারা দেশে চলছে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। প্রধান বিরোধী দল বিএনপি না আসায় নির্বাচনে উত্তেজনা নেই। আমেজহীন নির্বাচনে সেলিব্রিটিরা কে কোন কেন্দ্রে ভোট দিচ্ছেন। দেখে নেওয়া যাক—

 ‘মনপুরা’খ্যাত গুণী নির্মাতা গিয়াস উদ্দিন সেলিম ধানমন্ডির বাসিন্দা হিসেবে ঢাকা-১০ আসনের ভোটার। ভোট নিয়ে তার ছোট বার্তা— ‘অবশ্যই ভোট দিতে যাব। আগেও ভোট দিয়েছি, অভিজ্ঞতা বেশ ভালো। কারণ প্রতিনিধি নির্বাচন করতে ভালোই লাগে।’

‘আয়নাবাজি’ নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরী উত্তরার বাসিন্দা। সে হিসেবে ঢাকা-১৮ আসনের ভোটার তিনি। তার ছোট্ট মন্তব্য— ‘ভোট দিতে যাব। আগেও প্রতিবার ভালোভাবে ভোট দিয়েছি।’

একই আসনের ভোটার গায়িকা আঁখি আলমগীর। তিনি বললেন, ‘প্রতিবারই আমি ভোট দিই। এবারও দেব। রিকশায় চেপে নির্দিষ্ট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেব। বিষয়টি আমার কাছে ঈদের আনন্দের মতো।’

‘মহানগর’খ্যাত নির্মাতা আশফাক নিপুণ চট্টগ্রাম-৯ আসনের ভোটার। অতীতে ভোট দিলেও এবার তিনি ব্যালট পেপার হাতে তুলছেন না। অতীতে ভোট দেওয়া প্রসঙ্গে তার মন্তব্য— ‘অভিজ্ঞতা ভালো। দেওয়ার পরের অভিজ্ঞতা মৃদুমন্দ।’

ঢাকা-১৭ আসনের ভোটার নির্মাতা রায়হান রাফী। ঢাকায় না থাকার কারণে তিনি ভোট দিতে পারছেন না। তিনি জানালেন— ‘আমি গুলশান-১ এলাকার ভোটার। ঢাকা-১৭ সম্ভবত।’

অভিনেত্রী তমা মির্জা ঢাকা-১১ আসনের ভোটার। তিনি বলেছেন, ‘আমি বাড্ডার নাগরিক। এটা ঢাকা-১১ আসনের মধ্যে পড়েছে। আগে একবার ভোট দিতে গিয়েছিলাম। কিন্তু কোনো কারণে দেওয়া হয়নি। এবার দেওয়ার ইচ্ছে আছে।’

অভিনেতা সাজু খাদেম জানালেন, তিনি ঢাকা-১৩ আসনের ভোটার। অতীত অভিজ্ঞতা টেনে তিনি বলেন, ‘এবারও অবশ্যই ভোট দেব। আগের অভিজ্ঞতা খুব ভালো। ভোটকেন্দ্রে গিয়ে আমার ভোট আমিই দিয়েছি।’

ঢাকা-১০ আসনের ভোটার অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা। ভোট দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘অবশ্যই ভোট দেব। আমি মনে করি প্রতিটা ভোটারেরই ভোট দেওয়া উচিত। ৫ বছর আগে প্রথম ভোটার হই। তখনো ভোট দিতে গিয়েছি আমি। এবারও যাব।’

একই আসনের ভোটার চিত্রনায়িকা অধরা খান। তিনি বলেন, ‘আমি নিউমার্কেট এলাকায় থাকি। ঢাকা-১০ আসনের ভোটার। আগে ভোট দেওয়া হয়নি। এবার প্রথম ভোট দেব।’

চিত্রনায়ক ইমন ঢাকা-১৮ আসনের ভোটার। থাকেন বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায়। তিনি বলেছেন, ‘অবশ্যই ভোট দিতে যাব। আগেও দিয়েছি। ভোট দিতে আমার ভালো লাগে। তা ছাড়া এটা তো আমার অধিকার।’

অভিনেত্রী মৌসুমী হামিদ সাতক্ষীরা-১ আসনের ভোটার। ভোট দেওয়ার জন্য তিনি কাজ থেকে ছুটি নিয়ে গ্রামে গেছেন। 

ঢাকা-৮ আসনের ভোটার অভিনেত্রী-নির্মাতা হৃদি হক। ভোট দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ভোট হচ্ছে নাগরিকের অধিকার। যোগ্য নেতাকে নির্বাচিত করে রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়ার অধিকার। তাই ভোটের অধিকার অবশ্য পালনীয়। আমি নিয়মিত ভোটকেন্দ্রে যাওয়া মানুষ। এবারও যাচ্ছি।’

জনপ্রিয় সঞ্চালক শ্রাবণ্য তৌহিদা ঢাকা-১১ আসনের ভোটার। ভোট নিয়ে তিনি বলেন, ‘যাব মানে, কেন্দ্রে যাওয়ার অপেক্ষায় আছি। সেদিন ভোট ছাড়া আর কোনো কাজ রাখিনি।’