ঢাকা , বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

৬৪৮ এমপি নিয়ে বিতর্ক :  আইনমন্ত্রী বলছেন নীতিনির্ধারকরা চাইলে বিষয়টি স্পষ্ট করা হবে

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৬:৩১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২৪
  • 25

সিনিয়র রিপোর্টার : দেশে বর্তমানে ৬৪৮ জন সংসদ সদস্য (একাদশ ও দ্বাদশ সংসদ মিলে) আছেন বলে যে কথা হচ্ছে, নীতিনির্ধারকরা চাইলে বিষয়টি স্পষ্ট করা হবে বলে জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।  

বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারি) সচিবালয়ে ঢাকায় নিযুক্ত সৌদি রাষ্ট্রদূত ইসা বিন ইউসুফ আল-দুহাইলানের সঙ্গে বৈঠকের পর তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।

আনিসুল হক বলেন, সংবিধানে এখন যা আছে, সেভাবেই দেশ চলছে। এটা আজকে সংবিধানে সন্নিবেশিত করা হয়নি। এটা চতুর্দশ সংশোধনীতে সংযোজন করা হয়েছিল। এখন যে বিষয়টা নিয়ে আলাপ করা হচ্ছে, এটার বোধহয় খুব একটা গুরুত্ব নেই। তারপরও আমি বলবো, নীতিনির্ধারকরা যদি মনে করেন, এখানে কিছু আরও স্পষ্ট করার প্রয়োজন আছে; তাহলে দেখা যাবে।

আইনমন্ত্রী হিসেবে আপনি ৬৪৮ এমপি নিয়ে সমা‌লোচনার বিষয়টি স্পষ্ট করা প্রয়োজন বলে মনে করেন কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি তো বললাম, নীতিনির্ধারকরা যদি মনে করেন, স্পষ্ট করার প্রয়োজন আছে; তাহলে দেখা যাবে।

কোন জায়গাটা স্পষ্ট করার প্রয়োজন, এ বিষয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, আমি এখনো জানি না। নীতিনির্ধারকরা প্রয়োজন মনে করলে, সিদ্ধান্ত নেবেন। তারপর সেটা হবে। আমার মনে হয়, এখন যা হয়েছে, সবকিছুই সাংবিধানিকভাবে হয়েছে।

উল্লেখ্য- সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ‘এ মুহূর্তে একাদশ সংসদের ৩৫০ জন আর দ্বাদশ সংসদের ২৯৮ জন, মোট ৬৪৮ জন শপথবদ্ধ এমপি রয়েছেন। অথচ এটি সাংবিধানিকভাবে অবৈধ। ২৯ জানুয়ারি একাদশ সংসদের মেয়াদ শেষ হওয়া অবধি এ অরাজকতা থাকবে। এটি সংবিধানের চরম লঙ্ঘন।’ রুহুল কবির রিজভীর ওই বক্তব্যের পর দেশে ৬৪৮ এমপি নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা চলছে। 

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

দাওয়াত না পেয়ে বিয়ে বাড়িতে হামলা : অভিযুক্ত মেম্বার জেলহাজতে

৬৪৮ এমপি নিয়ে বিতর্ক :  আইনমন্ত্রী বলছেন নীতিনির্ধারকরা চাইলে বিষয়টি স্পষ্ট করা হবে

আপডেট সময় ০৬:৩১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২৪

সিনিয়র রিপোর্টার : দেশে বর্তমানে ৬৪৮ জন সংসদ সদস্য (একাদশ ও দ্বাদশ সংসদ মিলে) আছেন বলে যে কথা হচ্ছে, নীতিনির্ধারকরা চাইলে বিষয়টি স্পষ্ট করা হবে বলে জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।  

বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারি) সচিবালয়ে ঢাকায় নিযুক্ত সৌদি রাষ্ট্রদূত ইসা বিন ইউসুফ আল-দুহাইলানের সঙ্গে বৈঠকের পর তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।

আনিসুল হক বলেন, সংবিধানে এখন যা আছে, সেভাবেই দেশ চলছে। এটা আজকে সংবিধানে সন্নিবেশিত করা হয়নি। এটা চতুর্দশ সংশোধনীতে সংযোজন করা হয়েছিল। এখন যে বিষয়টা নিয়ে আলাপ করা হচ্ছে, এটার বোধহয় খুব একটা গুরুত্ব নেই। তারপরও আমি বলবো, নীতিনির্ধারকরা যদি মনে করেন, এখানে কিছু আরও স্পষ্ট করার প্রয়োজন আছে; তাহলে দেখা যাবে।

আইনমন্ত্রী হিসেবে আপনি ৬৪৮ এমপি নিয়ে সমা‌লোচনার বিষয়টি স্পষ্ট করা প্রয়োজন বলে মনে করেন কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি তো বললাম, নীতিনির্ধারকরা যদি মনে করেন, স্পষ্ট করার প্রয়োজন আছে; তাহলে দেখা যাবে।

কোন জায়গাটা স্পষ্ট করার প্রয়োজন, এ বিষয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, আমি এখনো জানি না। নীতিনির্ধারকরা প্রয়োজন মনে করলে, সিদ্ধান্ত নেবেন। তারপর সেটা হবে। আমার মনে হয়, এখন যা হয়েছে, সবকিছুই সাংবিধানিকভাবে হয়েছে।

উল্লেখ্য- সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ‘এ মুহূর্তে একাদশ সংসদের ৩৫০ জন আর দ্বাদশ সংসদের ২৯৮ জন, মোট ৬৪৮ জন শপথবদ্ধ এমপি রয়েছেন। অথচ এটি সাংবিধানিকভাবে অবৈধ। ২৯ জানুয়ারি একাদশ সংসদের মেয়াদ শেষ হওয়া অবধি এ অরাজকতা থাকবে। এটি সংবিধানের চরম লঙ্ঘন।’ রুহুল কবির রিজভীর ওই বক্তব্যের পর দেশে ৬৪৮ এমপি নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা চলছে।