ঢাকা , রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শনিবার ইজতেমা ময়দানে শতাধিক যৌতুক বিহীন বিয়ের আয়োজন অনুষ্ঠিত

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৭:৩০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • 41
অনলাইন ডেস্ক  :  শনিবার ইজতেমা ময়দানে তাবলীগ জামাতের বিশেষ আকর্ষণ যৌতুক বিহীন বিয়ের আয়োজন সম্পন্ন করা হয়। প্রতি বছরের ন্যায় এবারও রেওয়াজ অনুযায়ী টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় দিনে শনিবার বাদ আছর ইজতেমাস্থলে বয়ান মঞ্চের পাশে হযরত ফাতেমা (রাঃ) ও হযরত আলী (রাঃ) এর বিয়ের দেনমোহর অনুসারে বিনা যৌতুকে শতাধিক বিয়ে পড়ানো হয়। 
এর আগে বিয়ের জন্য বর ও কনের নাম লিপিবদ্ধ করা হয়। বিয়ের আগে বাদ আছর বিয়ের খুৎবা প্রদান শেষে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করা হয়। ইজতেমার অন্যতম প্রধান আকর্ষণ যৌতুকবিহীন বিয়ে। বিয়ের অনুষ্ঠান উপভোগ করতে বয়ান মঞ্চের কাছে বরের দল ছাড়াও উৎসুক মুসল্লীরা উপস্থিত ছিলেন।
বিয়েতে কনেরা উপস্থিত না থাকলেও শতাধিক বর ও বর-কনের অবিভাবকদের উপস্থিতিতে যৌতুক বিহীন বিয়ের আয়োজনটি ইসলামি কায়দায় জাঁকজমকপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে। নূন্যতম দেনমোহরে এ বিয়ের আয়োজন শেষে উপস্থিত আশপাশের মুসল্লীদের মাঝে খুরমা খেজুর ও মিষ্টি বিতরণ করা হয়। কনের সম্মতি এবং কনেদের অনুপস্থিতিতে এ বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা হয়েছে। বর এবং বর-কনের অভিভাবকদের স্বাক্ষীতে বিয়ে পড়ানো হয়। বিয়ে পড়ানো শেষে নব দম্পতিদের জন্য দোয়া করেন উপস্থিত লাখ লাখ মুসল্লী। ইজতেমা শেষে বরেরা বাড়ি ফিরে বাসরঘর করবেন বলে বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত নয়া বরেরা জানিয়েছেন। নয়া বিয়ে করা উপস্থিত বরেরা বলেছেন, বিয়ের অনুষ্ঠানটি খুবই ভালো লেগেছে আমাদের। বিয়ের সাথে সাথে বউ কাছে পাইনি ঠিক কিন্তু শ্বশুরদের তাৎক্ষণিক খুরমা খেজুরের আদর আপ্যায়ন খুবই ভালো লেগেছে। নয়া বরেরা দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়ে বলছেন, আপনাদের দোয়ায় আমাদের দাম্পত্য জীবন সুখময় হবে, ইনশাআল্লাহ।
ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

শনিবার  ডিএমপি’র  কমিশনার হাবিবুর রহমান জানিয়েছেন : পহেলা বৈশাখে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা নেই

শনিবার ইজতেমা ময়দানে শতাধিক যৌতুক বিহীন বিয়ের আয়োজন অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় ০৭:৩০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
অনলাইন ডেস্ক  :  শনিবার ইজতেমা ময়দানে তাবলীগ জামাতের বিশেষ আকর্ষণ যৌতুক বিহীন বিয়ের আয়োজন সম্পন্ন করা হয়। প্রতি বছরের ন্যায় এবারও রেওয়াজ অনুযায়ী টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় দিনে শনিবার বাদ আছর ইজতেমাস্থলে বয়ান মঞ্চের পাশে হযরত ফাতেমা (রাঃ) ও হযরত আলী (রাঃ) এর বিয়ের দেনমোহর অনুসারে বিনা যৌতুকে শতাধিক বিয়ে পড়ানো হয়। 
এর আগে বিয়ের জন্য বর ও কনের নাম লিপিবদ্ধ করা হয়। বিয়ের আগে বাদ আছর বিয়ের খুৎবা প্রদান শেষে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করা হয়। ইজতেমার অন্যতম প্রধান আকর্ষণ যৌতুকবিহীন বিয়ে। বিয়ের অনুষ্ঠান উপভোগ করতে বয়ান মঞ্চের কাছে বরের দল ছাড়াও উৎসুক মুসল্লীরা উপস্থিত ছিলেন।
বিয়েতে কনেরা উপস্থিত না থাকলেও শতাধিক বর ও বর-কনের অবিভাবকদের উপস্থিতিতে যৌতুক বিহীন বিয়ের আয়োজনটি ইসলামি কায়দায় জাঁকজমকপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে। নূন্যতম দেনমোহরে এ বিয়ের আয়োজন শেষে উপস্থিত আশপাশের মুসল্লীদের মাঝে খুরমা খেজুর ও মিষ্টি বিতরণ করা হয়। কনের সম্মতি এবং কনেদের অনুপস্থিতিতে এ বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা হয়েছে। বর এবং বর-কনের অভিভাবকদের স্বাক্ষীতে বিয়ে পড়ানো হয়। বিয়ে পড়ানো শেষে নব দম্পতিদের জন্য দোয়া করেন উপস্থিত লাখ লাখ মুসল্লী। ইজতেমা শেষে বরেরা বাড়ি ফিরে বাসরঘর করবেন বলে বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত নয়া বরেরা জানিয়েছেন। নয়া বিয়ে করা উপস্থিত বরেরা বলেছেন, বিয়ের অনুষ্ঠানটি খুবই ভালো লেগেছে আমাদের। বিয়ের সাথে সাথে বউ কাছে পাইনি ঠিক কিন্তু শ্বশুরদের তাৎক্ষণিক খুরমা খেজুরের আদর আপ্যায়ন খুবই ভালো লেগেছে। নয়া বরেরা দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়ে বলছেন, আপনাদের দোয়ায় আমাদের দাম্পত্য জীবন সুখময় হবে, ইনশাআল্লাহ।