ঢাকা , সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গণতন্ত্র মঞ্চের নেতারা বলেছেন : বাজার সিন্ডিকেটের সঙ্গে জড়িতরা সরকারদলীয় লোক

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ১০:০৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • 66
অনলাইন ডেস্ক  :  গণতন্ত্র মঞ্চের নেতারা অভিযোগ করে বলেছেন, বাজার সিন্ডিকেটের সঙ্গে জড়িতরা সবাই সরকারদলীয় লোক। এ কারণে ঘোষণা দেওয়া সত্ত্বেও দাম কমানো যাচ্ছে না। তারা নিত্যপণ্যের দাম বাড়িয়ে মানুষের পকেট থেকে টাকা হাতিয়ে নিতে চায়।  শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বিকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত সমাবেশে গণতন্ত্র মঞ্চের নেতারা এসব কথা বলেন। ‘দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি ও অরক্ষিত সীমান্তের প্রতিবাদে’ এই সমাবেশের আয়োজন করা হয়। সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল করেন তারা। 
সমাবেশে গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে জিনিসপত্রের দাম কমলেও দেশে কমছে না। উল্টো আন্তর্জাতিক বাজারের দোহাই দিয়ে দাম বাড়ানো হচ্ছে।  সিন্ডিকেটের মূল হোতা এই সরকার, এমন অভিযোগ তুলে সাকি বলেন, তারা (সরকার দলের লোকেরা) নিত্যপণ্যের দাম বাড়িয়ে মানুষের পকেট থেকে টাকা হাতিয়ে নিতে চায়।
সমাবেশে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি তানিয়া রব বলেন, জনগণের মতামতের গুরুত্ব না থাকার কারণে দেশ এখন অনৈতিকতার চারণভূমি হয়ে গেছে। রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক হাসনাত কাইয়ুম বলেন, সীমান্তে কেন বিজিবি সদস্য হত্যা করা হচ্ছে, এ নিয়ে কেউ কোনো কথা বলছে না। সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন নাগরিক ঐক্যের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল্লাহ কায়সার, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির রাজনৈতিক পরিষদ সদস্য মাহমুদ হাসান, জেএসডির সাধারণ সম্পাদক শহীদ উদ্দিন মাহমুদ প্রমুখ।   
ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

র‌্যাবকে যেসব নির্দেশনা দিলেন নতুন ডিজি

গণতন্ত্র মঞ্চের নেতারা বলেছেন : বাজার সিন্ডিকেটের সঙ্গে জড়িতরা সরকারদলীয় লোক

আপডেট সময় ১০:০৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
অনলাইন ডেস্ক  :  গণতন্ত্র মঞ্চের নেতারা অভিযোগ করে বলেছেন, বাজার সিন্ডিকেটের সঙ্গে জড়িতরা সবাই সরকারদলীয় লোক। এ কারণে ঘোষণা দেওয়া সত্ত্বেও দাম কমানো যাচ্ছে না। তারা নিত্যপণ্যের দাম বাড়িয়ে মানুষের পকেট থেকে টাকা হাতিয়ে নিতে চায়।  শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বিকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত সমাবেশে গণতন্ত্র মঞ্চের নেতারা এসব কথা বলেন। ‘দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি ও অরক্ষিত সীমান্তের প্রতিবাদে’ এই সমাবেশের আয়োজন করা হয়। সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল করেন তারা। 
সমাবেশে গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে জিনিসপত্রের দাম কমলেও দেশে কমছে না। উল্টো আন্তর্জাতিক বাজারের দোহাই দিয়ে দাম বাড়ানো হচ্ছে।  সিন্ডিকেটের মূল হোতা এই সরকার, এমন অভিযোগ তুলে সাকি বলেন, তারা (সরকার দলের লোকেরা) নিত্যপণ্যের দাম বাড়িয়ে মানুষের পকেট থেকে টাকা হাতিয়ে নিতে চায়।
সমাবেশে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি তানিয়া রব বলেন, জনগণের মতামতের গুরুত্ব না থাকার কারণে দেশ এখন অনৈতিকতার চারণভূমি হয়ে গেছে। রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক হাসনাত কাইয়ুম বলেন, সীমান্তে কেন বিজিবি সদস্য হত্যা করা হচ্ছে, এ নিয়ে কেউ কোনো কথা বলছে না। সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন নাগরিক ঐক্যের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল্লাহ কায়সার, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির রাজনৈতিক পরিষদ সদস্য মাহমুদ হাসান, জেএসডির সাধারণ সম্পাদক শহীদ উদ্দিন মাহমুদ প্রমুখ।