ঢাকা , রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ : হেরে গেল ইমরানের দল

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৪:০৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ মার্চ ২০২৪
  • 29
অনলাইন ডেস্ক : পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজের (পিএমএল-এন) প্রেসিডেন্ট শাহবাজ শরিফ। দেশটির ২৪তম প্রধানমন্ত্রী হলেন তিনি।  জাতীয় নির্বাচনে ভালো করলেও প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনে হেরে গেছে ইমরান খানের দল। রবিবার (৩ মার্চ) জাতীয় পরিষদের স্পিকার সরদার আয়াজ সাদিক এ ঘোষণা দেন।
নব নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী শিগগিরই সংসদে ভাষণ দেবেন বলে আশা করা হচ্ছে। ঘোষণার পর বড় ভাই নওয়াজকে জড়িয়ে ধরেন শাহবাজ। শেহবাজের কথা বলার সময়, পিটিআই-সমর্থিত আইনপ্রণেতারা বিরোধী বেঞ্চ থেকে ‘চোর’ স্লোগান দেন। এ সময় শাহবাজ বলেন, আমার কায়েদ যখন তিনবার প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন, তখন দেশে যে উন্নয়ন হয়েছে তা তার নিজস্ব উদাহরণ। এবং এটা বলা ভুল নয় যে নওয়াজ শরীফই যিনি পাকিস্তান তৈরি করেছিল। জুলফিকার আলী ভুট্টোর আত্মত্যাগকে জাতি চিরকাল মনে রাখবে বলেও জানান তিনি।
জাতীয় পরিষদের ভোটাভুটিতে শাহবাজ ২০১ ভোট পেয়েছেন। ওমর পান ৯২ ভোট। পাকিস্তানের সংবিধানে বলা আছে, প্রধানমন্ত্রী হতে হলে কোনো প্রার্থীকে পার্লামেন্টের ৩৩৬ সদস্যের মধ্যে ১৬৯ জনের ভোট পেতে হবে। ২০২২ সালের এপ্রিলে পাকিস্তানের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ জাতীয় পরিষদে বিরোধীদের আনা অনাস্থা ভোটে ক্ষমতাচ্যুত হয় ইমরান খানের দল পিটিআইয়ের নেতৃত্বাধীন জোট সরকার।
গত ৮ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদ ও চারটি প্রাদেশিক পরিষদে নির্বাচন হয়। জাতীয় পরিষদের মোট ২৬৪টি আসনে ভোট হয়। এতে পিটিআই-সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা সর্বোচ্চ ৯০ আসনে জয় পান। ৭৯ আসন পান পিএমএল-এন। আর ৫৪টি আসন পেয়ে তৃতীয় অবস্থানে পিপিপি। 
ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

শনিবার  ডিএমপি’র  কমিশনার হাবিবুর রহমান জানিয়েছেন : পহেলা বৈশাখে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা নেই

পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ : হেরে গেল ইমরানের দল

আপডেট সময় ০৪:০৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ মার্চ ২০২৪
অনলাইন ডেস্ক : পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজের (পিএমএল-এন) প্রেসিডেন্ট শাহবাজ শরিফ। দেশটির ২৪তম প্রধানমন্ত্রী হলেন তিনি।  জাতীয় নির্বাচনে ভালো করলেও প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনে হেরে গেছে ইমরান খানের দল। রবিবার (৩ মার্চ) জাতীয় পরিষদের স্পিকার সরদার আয়াজ সাদিক এ ঘোষণা দেন।
নব নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী শিগগিরই সংসদে ভাষণ দেবেন বলে আশা করা হচ্ছে। ঘোষণার পর বড় ভাই নওয়াজকে জড়িয়ে ধরেন শাহবাজ। শেহবাজের কথা বলার সময়, পিটিআই-সমর্থিত আইনপ্রণেতারা বিরোধী বেঞ্চ থেকে ‘চোর’ স্লোগান দেন। এ সময় শাহবাজ বলেন, আমার কায়েদ যখন তিনবার প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন, তখন দেশে যে উন্নয়ন হয়েছে তা তার নিজস্ব উদাহরণ। এবং এটা বলা ভুল নয় যে নওয়াজ শরীফই যিনি পাকিস্তান তৈরি করেছিল। জুলফিকার আলী ভুট্টোর আত্মত্যাগকে জাতি চিরকাল মনে রাখবে বলেও জানান তিনি।
জাতীয় পরিষদের ভোটাভুটিতে শাহবাজ ২০১ ভোট পেয়েছেন। ওমর পান ৯২ ভোট। পাকিস্তানের সংবিধানে বলা আছে, প্রধানমন্ত্রী হতে হলে কোনো প্রার্থীকে পার্লামেন্টের ৩৩৬ সদস্যের মধ্যে ১৬৯ জনের ভোট পেতে হবে। ২০২২ সালের এপ্রিলে পাকিস্তানের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ জাতীয় পরিষদে বিরোধীদের আনা অনাস্থা ভোটে ক্ষমতাচ্যুত হয় ইমরান খানের দল পিটিআইয়ের নেতৃত্বাধীন জোট সরকার।
গত ৮ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদ ও চারটি প্রাদেশিক পরিষদে নির্বাচন হয়। জাতীয় পরিষদের মোট ২৬৪টি আসনে ভোট হয়। এতে পিটিআই-সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা সর্বোচ্চ ৯০ আসনে জয় পান। ৭৯ আসন পান পিএমএল-এন। আর ৫৪টি আসন পেয়ে তৃতীয় অবস্থানে পিপিপি।