ঢাকা , রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সুপ্রিমকোর্ট বার নির্বাচনে সংঘাত, ভিডিও বার্তায় যা বললেন শেখ ফজলে শামস পরশ

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৭:৫২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৬ মার্চ ২০২৪
  • 16
অনলাইন ডেস্ক :  সুপ্রিম কোর্টে অনাকাঙিক্ষত ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ বলেছেন, সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনায় যুবলীগের কেউ জড়িত থাকলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমি সার্বিক অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির অবতারণা হওয়ার জন্য দুঃখ প্রকাশ করছি।  শুক্রবার এক ভিডিও বার্তায় তিনি এসব কথা বলেন। যুবলীগের আদর্শ ও ঐতিহাসিক ভূমিকা তুলে ধরে পরশ বলেন, যুবলীগ শেখ হাসিনার ভ্যানগার্ড সংগঠন। শেখ হাসিনার বাইরে এই সংগঠন অবস্থান নেওয়ার প্রশ্নই ওঠে না। এ ব্যাপারে বিভ্রান্তির সুযোগ নেই। একটি সুষ্ঠু প্রতিযোগিতামূলক অংশগ্রহণমূলক এবং গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের উদ্দেশ্যেই যুবলীগের আইনজীবীরা সমবেত হয়ে গত ৬ এবং ৭ মার্চ উৎসবমুখর পরিবেশে সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন নির্বাচনে ভোট দিয়েছেন। ৮ মার্চ নির্বাচন কেন্দ্র করে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনা যুবলীগ কোনোভাবেই সমর্থন করে না। বিচ্ছিন্নভাবে কেউ যদি এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকে তার নিরপেক্ষ তদন্ত করে সাংগঠনিক ব্যবস্থার আওতায় আনা হবে।

তিনি বলেন, যুবলীগ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ও বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের স্বপ্নকে বুকে ধারণ করে মানবিক যুবসমাজ প্রতিষ্ঠায় দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ।
এদিকে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির ২০২৪-২৫ সালের নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হয় বুধ ও বৃহস্পতিবার। ৭ হাজার ৮৮৩ জন আইনজীবীর মধ্যে ৫ হাজার ৩১৯ আইনজীবী ভোট দেন। কিন্তু ঝামেলা বাধে ভোট গণনা নিয়ে। আইনজীবীরা বলছেন, বৃহস্পতিবার ভোটগ্রহণ শেষে যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশের স্ত্রী সাধারণ সম্পাদক পদের স্বতন্ত্র প্রার্থী নাহিদ সুলতানা যুথী রাতেই ভোট গণনা শেষ করে ফলাফলের দাবি জানান।
কিন্তু বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ মনোনীত প্যানেল থেকে সম্পাদক পদপ্রার্থী শাহ মঞ্জুরুল হকসহ অন্যরা শুক্রবার বিকালে ভোট গণনার দাবি জানান।  এনিয়ে শুরু হয় ঝামেলা।  এক পর্যায়ে হাতাহাতি থেকে শুরু ভাঙচুরের ঘটনাও ঘটে।  
ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

শনিবার  ডিএমপি’র  কমিশনার হাবিবুর রহমান জানিয়েছেন : পহেলা বৈশাখে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা নেই

সুপ্রিমকোর্ট বার নির্বাচনে সংঘাত, ভিডিও বার্তায় যা বললেন শেখ ফজলে শামস পরশ

আপডেট সময় ০৭:৫২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৬ মার্চ ২০২৪
অনলাইন ডেস্ক :  সুপ্রিম কোর্টে অনাকাঙিক্ষত ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ বলেছেন, সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনায় যুবলীগের কেউ জড়িত থাকলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমি সার্বিক অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির অবতারণা হওয়ার জন্য দুঃখ প্রকাশ করছি।  শুক্রবার এক ভিডিও বার্তায় তিনি এসব কথা বলেন। যুবলীগের আদর্শ ও ঐতিহাসিক ভূমিকা তুলে ধরে পরশ বলেন, যুবলীগ শেখ হাসিনার ভ্যানগার্ড সংগঠন। শেখ হাসিনার বাইরে এই সংগঠন অবস্থান নেওয়ার প্রশ্নই ওঠে না। এ ব্যাপারে বিভ্রান্তির সুযোগ নেই। একটি সুষ্ঠু প্রতিযোগিতামূলক অংশগ্রহণমূলক এবং গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের উদ্দেশ্যেই যুবলীগের আইনজীবীরা সমবেত হয়ে গত ৬ এবং ৭ মার্চ উৎসবমুখর পরিবেশে সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন নির্বাচনে ভোট দিয়েছেন। ৮ মার্চ নির্বাচন কেন্দ্র করে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনা যুবলীগ কোনোভাবেই সমর্থন করে না। বিচ্ছিন্নভাবে কেউ যদি এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকে তার নিরপেক্ষ তদন্ত করে সাংগঠনিক ব্যবস্থার আওতায় আনা হবে।

তিনি বলেন, যুবলীগ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ও বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের স্বপ্নকে বুকে ধারণ করে মানবিক যুবসমাজ প্রতিষ্ঠায় দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ।
এদিকে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির ২০২৪-২৫ সালের নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হয় বুধ ও বৃহস্পতিবার। ৭ হাজার ৮৮৩ জন আইনজীবীর মধ্যে ৫ হাজার ৩১৯ আইনজীবী ভোট দেন। কিন্তু ঝামেলা বাধে ভোট গণনা নিয়ে। আইনজীবীরা বলছেন, বৃহস্পতিবার ভোটগ্রহণ শেষে যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশের স্ত্রী সাধারণ সম্পাদক পদের স্বতন্ত্র প্রার্থী নাহিদ সুলতানা যুথী রাতেই ভোট গণনা শেষ করে ফলাফলের দাবি জানান।
কিন্তু বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ মনোনীত প্যানেল থেকে সম্পাদক পদপ্রার্থী শাহ মঞ্জুরুল হকসহ অন্যরা শুক্রবার বিকালে ভোট গণনার দাবি জানান।  এনিয়ে শুরু হয় ঝামেলা।  এক পর্যায়ে হাতাহাতি থেকে শুরু ভাঙচুরের ঘটনাও ঘটে।