ঢাকা , বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

 

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৮:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জানুয়ারী ২০২৪
  • 72

বছর হজে যেতে পারবেন লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন বাংলাদেশি

অনলাইন ডেস্ক : চলতি বছর হজ পালনের জন্য সৌদি সরকারের সঙ্গে বাংলাদেশের দ্বিপক্ষীয় হজ চুক্তি সম্পন্ন হয়েছে। সোমবার সৌদি আরবের জেদ্দায় দুই দেশের প্রতিনিধির উপস্থিতিতে এই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হয়। চুক্তি অনুযায়ী এবছর ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন বাংলাদেশি হজ পালনের সুযোগ পাবেন।

এ সময় সৌদি আরবের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন সৌদি হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী ড. আব্দুল ফাত্তাহ বিন সুলাইমান মাশাত ও অন্যান্য কর্মকর্তারা এবং বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মু. আ. হামিদ জমাদ্দার, ধর্মমন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (হজ) মতিউল ইসলাম, হাব সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম, পরিচালক (হজ অফিস) সাইফুল ইসলাম, কাউন্সিলর (হজ) জেদ্দা জহিরুল ইসলাম, কনসাল (হজ) জেদ্দা আসলাম উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

এতে দুই পক্ষের প্রতিনিধির সঙ্গে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এসময় সুষ্ঠু ও সুশৃঙ্খল হজ ব্যবস্থাপনার স্বার্থে ও বাংলাদেশের হজযাত্রীদের কল্যাণে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। হজ এজেন্সির সংখ্যা না কমিয়ে অন্যান্য বছরের ন্যায় সব এজেন্সিকে রেখে হজ কার্যক্রম পরিচালনার জন্য সৌদি উপমন্ত্রীকে জোরালো অনুরোধ করেন হাব সভাপতি। 

এছাড়া হজযাত্রীদের লাগেজ পরিবহন ও ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন, মিনা আরাফায় তাঁবু ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন ও হজের ১০ দিন আগে এজেন্সিকে তাবু বুঝিয়ে দেওয়ার ব্যাপারে সৌদি আরবকে অনুরোধ জানানো হয়।

সভায় ধর্ম সচিব মু. আ. হামিদ জমাদ্দার হজ ব্যবস্থাপনার বিভিন্ন বিষয় এবং হজযাত্রীদের সুযোগ বৃদ্ধির বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। সভাশেষে দ্বিপক্ষীয় হজ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। 

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন : অপরাধী হলে আজিজ-বেনজীরের বিচার হবে

 

আপডেট সময় ০৮:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জানুয়ারী ২০২৪

বছর হজে যেতে পারবেন লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন বাংলাদেশি

অনলাইন ডেস্ক : চলতি বছর হজ পালনের জন্য সৌদি সরকারের সঙ্গে বাংলাদেশের দ্বিপক্ষীয় হজ চুক্তি সম্পন্ন হয়েছে। সোমবার সৌদি আরবের জেদ্দায় দুই দেশের প্রতিনিধির উপস্থিতিতে এই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হয়। চুক্তি অনুযায়ী এবছর ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন বাংলাদেশি হজ পালনের সুযোগ পাবেন।

এ সময় সৌদি আরবের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন সৌদি হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী ড. আব্দুল ফাত্তাহ বিন সুলাইমান মাশাত ও অন্যান্য কর্মকর্তারা এবং বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মু. আ. হামিদ জমাদ্দার, ধর্মমন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (হজ) মতিউল ইসলাম, হাব সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম, পরিচালক (হজ অফিস) সাইফুল ইসলাম, কাউন্সিলর (হজ) জেদ্দা জহিরুল ইসলাম, কনসাল (হজ) জেদ্দা আসলাম উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

এতে দুই পক্ষের প্রতিনিধির সঙ্গে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এসময় সুষ্ঠু ও সুশৃঙ্খল হজ ব্যবস্থাপনার স্বার্থে ও বাংলাদেশের হজযাত্রীদের কল্যাণে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। হজ এজেন্সির সংখ্যা না কমিয়ে অন্যান্য বছরের ন্যায় সব এজেন্সিকে রেখে হজ কার্যক্রম পরিচালনার জন্য সৌদি উপমন্ত্রীকে জোরালো অনুরোধ করেন হাব সভাপতি। 

এছাড়া হজযাত্রীদের লাগেজ পরিবহন ও ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন, মিনা আরাফায় তাঁবু ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন ও হজের ১০ দিন আগে এজেন্সিকে তাবু বুঝিয়ে দেওয়ার ব্যাপারে সৌদি আরবকে অনুরোধ জানানো হয়।

সভায় ধর্ম সচিব মু. আ. হামিদ জমাদ্দার হজ ব্যবস্থাপনার বিভিন্ন বিষয় এবং হজযাত্রীদের সুযোগ বৃদ্ধির বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। সভাশেষে দ্বিপক্ষীয় হজ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।